আশুলিয়ায় চুরির দায়ে সাবেক স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: ১২:১৭ পূর্বাহ্ণ , এপ্রিল ৫, ২০২১

আশুলিয়ায় চুরির দায়ে সাবেক স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মৃদুলুজ্জামান মৃদুল (৪৫) গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতার চাদাঁবাজীতে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে এলাকাবাসী। তার চাঁদাবাজীর কাছ থেকে রেহাই পাচ্ছেনা এলাকার ছোট বড় ব্যবসায়ী, ক্যারাম বোর্ড, ফুটপাত, চা দোকানী, মুদি দোকানী থেকে শুরু করে এলাকার ময়লা-আবর্জনা পরিস্কারক সুইপার শ্রেনী পেশার মানুষ। ধামসোনা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড এর বহিষ্কৃত স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ- সভাপতি মোঃ মৃদুল হোসেন এখন এলাকার আতংকের নাম।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয়রা সাংবাদিকদের জানান, বিএনপি নেতা মৃদুল আগে থেকেই এলাকায় চাঁদাবাজী , ফিটিং বানিজ্য, চড়া সুদে টাকা দিয়ে মাদক ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা করাসহ বিভিন্ন অসামাজিক কর্মকান্ডে লিপ্ত ছিল। এ ঘটনায় জড়িত আরও তিনজনের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শনিবার (৩ এপ্রিল) রাতে আশুলিয়ার পলাশবাড়ী বাতানটেক এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মৃদুল আশুলিয়া বাতানটেকের মৃত আওলাদ হোসেনের ছেলে।

মামলায় অন্যন্য আসামিরা হলেন, আব্দুল হামিদ, নয়ন ইসলাম ও মেঘা। তারা সবাই আশুলিয়ার বাতানটেকের বাসিন্দা।

মামলার বাদি আব্দুর রশিদ জানান, গ্রেপ্তার মৃদুল স্বেচ্ছাসেবকলীগের বহিষ্কৃত নেতা হলেও প্রভাব খাটিয়ে এলাকায় নানা অপরাধ সংগঠিত করত। গত কয়েকদিন আগে তার বৈদ্যুতিক কাজের ব্যবহৃত খুটি ও বৈদ্যুতির তার চুরি করে নেয়। এছাড়া বাড়িতে ডুকে তার স্ত্রীর সাথে অশালীন আচারন ও মারপিট করে স্বর্ণ গহনা লুট করে নেন। এ ঘটনায় তার সঙ্গে আরও তিনজন জড়িত বলেও তিনি জানান।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক শফিউল্লা শিকদার জানান, বৈদ্যুতিক খুটি ও তার চুরির দায়ে মৃদলু্লুজ্জামানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে বলেও তিনি জানান।