পরিবেশ রক্ষায় নগরীর রাস্তায় পানি ছিটাচ্ছে চসিক

প্রকাশিত: ৬:৫৬ অপরাহ্ণ , নভেম্বর ১৬, ২০২০

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন শীতকালে ধূলোবালিতে এ্যাজমা ও শ্বাসকষ্টজনিত রোগ বিস্তার রোধে নগরীর রাস্তা-ঘাটে পানি ছিটানোর জন্য সরকারি, আধাসরকারি ও স্বায়ত্বশাসিত সংস্থা ও কর্তৃপক্ষকে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান।

প্রশাসকের নির্দেশে আজ সকালে মেরিনার্স রোডের ফিরিঙ্গি বাজার থেকে নতুন ব্রীজ পর্যন্ত ধূলোবালি মুক্তকরণে চসিকের পানি ছিটানো কার্যক্রম চালানো হয়।

চট্টগ্রাম নগরীতে বিভিন্ন সড়ক ও লোকালয়ে ওয়াসা, পিডিবি সিডিএসহ বিভিন্ন সেবা সংস্থার প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ চলছে। এ জন্য খোঁড়া-খুঁড়ি ও সড়ক কর্তন করা হচ্ছে। এতে ধুলোবালির মাত্রা বেড়েছে। ফলে দিনের বেলায় পরিবেশ ধোয়াশাঁ হয়ে ওঠছে, বায়ুদুষণজনিত সমস্যা নাগরিক অস্বস্থির কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে। এর বিরূপ প্রতিক্রিয়ায় শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন রোগ-বালাই বৃদ্ধির আশংকা রয়েছে। এ বিষয়টি মাথায় রেখে প্রকল্প বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষকে প্রকল্পের চালিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি এর প্রভাবে যাতে ধূলাবালি না ছড়ায় সেজন্য প্রকল্পের স্থানে পানি ছিটানো কার্যক্রম আবশ্যিক শর্ত হিসেবে মানতে হবে। প্রশাসকের নিদের্শে সেবা সংস্থাগুলোর প্রধান ও শাখা কার্যালয়ের সামনে এবং দোকান-পাট ও ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের সামনে পানি ছিটাতে হবে।

উল্লেখ্য, চসিকের চলমান পানি ছিটানো কার্যক্রমের অংশ হিসেবে প্রশাসকের নির্দেশে গতকাল রোববার নগরীর কদমতলী থেকে আগ্রাবাদ বাদামতলী মোড় পর্যন্ত পানি ছিটানো হয়।

জুবলী রোড়ে চসিকের অভিযান ২৮ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

নগরীর জুবলী রোড (তিন পুলের মাথা), পুরাতন স্টেশন রোড, নিউমার্কেট থেকে অমর চাঁদ রোড, কালী বাড়ী মোড় পর্যন্ত সড়কের ফুটপাতের ওপর অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদ করেছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আজ সোমবার সকালে কর্পোরেশনের উদ্যোগে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী ও স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট (যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ) জাহানারা ফেরদৌস এর নেতৃত্বে এ উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়।

অভিযানকালে রাস্তা ও ফুটপাতের ওপর অবৈধভাবে ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের মালামাল রেখে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করার দায়ে ২৮টি প্রতিষ্ঠানকে ৮১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযানকালে কর্পোরেশনের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ সহায়তা প্রদান করেন।