রাঙ্গুনিয়ায় ফাতেহা ইয়াজদাহুমের আলোচনায় সাইয়্যিদ সাইফুদ্দিন আহমদ আল হাসানি

আন্দোলনের নামে অরাজকতা সৃষ্টি ইসলাম সমর্থন করে না

প্রকাশিত: ৭:২১ অপরাহ্ণ , ডিসেম্বর ১৪, ২০২০

প্রিয় নবিজীর (দ) প্রণীত শান্তি-সম্প্রীতির রূপরেখা “মদীনা সনদ” এর আলোকে দেশ পরিচালিত হবে, এটা আমাদের প্রাণের দাবি। সে লক্ষ্যে আমাদেরকে নিয়মতান্ত্রিক ও শান্তিপূর্ণ উপায়ে আন্দোলন করে যেতে হবে৷ কিন্তু কোনভাবেই দেশের চলমান সংবিধান, আইনকে অমান্য বা অশ্রদ্ধা করা, আন্দোলনের নামে দেশের মধ্যে অরাজক পরিস্থিতির সৃষ্টি করা ইসলাম সমর্থন করে না। গত ১৩ ডিসেম্বর রাঙ্গুনিয়া উপজেলাধীন পোমরা ইউনিয়নে ৩নং ওয়ার্ড হিলাগাজীপাড়া হেফজখানা ময়দানে পবিত্র ফাতেহায়ে ইয়াজদাহুমের আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আনজুমান এ রহমানিয়া মইনিয়া মাইজভাণ্ডারিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন শাহসুফি মাওলানা সাইয়্যিদ সাইফুদ্দিন আহমদ আল হাসানি ওয়াল হোসাইনি আল মাইজভাণ্ডারি (মা জি আ) এ কথা বলেন।তিনি আরো বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধসহ সকল স্বাধিকার আন্দোলনে,

সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে এদেশের সূফি আউলিয়ায়ে কেরামগণ সংগ্রাম করে গেছেন এবং এখনও দেশের জন্য তারা আত্মনিবেদিত হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। অপরদিকে একশ্রেণীর স্বার্থান্বেষী মহল বিভিন্ন সময়ে ধর্মকে রাজনীতির হাতিয়ার বানিয়েছে। তাই শান্তি-সম্প্রীতিপূর্ণ সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে সমুন্নত রাখা তথা মানুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠায় প্রকৃত ইসলামের ধারাকে রাষ্ট্রীয়, সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিকভাবে পৃষ্ঠপোষকতা করতে হবে। আবু তাহের সওদাগরের সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মাহ্ফিলের উদ্বোধন করেন এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলী ইঞ্জিনিয়ার আহমদ শফি, প্রধান বক্তা ছিলেন উরকিরচর মোহাম্মদীয়া গাউসিয়া সুন্নীয়া সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আল্লামা হাসান রেজা আল ক্বাদেরী, বিশেষ বক্তা ছিলেন ইসলামিয়া হাট ফয়েজ উকিল মিঞা কেন্দ্রীয় শাহী জামে মসজিদের খতিব শাহ্জাদা সৈয়দ আহমদ রেজা আল ক্বাদেরী, বিশেষ অতিথি ছিলেন আঞ্জুমান-এ রাহমানিয়া মইনীয়া মাইজভাণ্ডারীয়া’র কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক সম্পাদক, ওয়াহিদুল কবির চৌধুরী। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খলিফা রুহুল আমিন পাখি, মাহফিল প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক প্রকৌশলী এরশাদ কবির চৌধুরী, সদস্য সচিব আমিনুর রহমান বাবুল প্রমুখ। মিলাদ কিয়াম শেষে বিশ্বমানবতার কল্যাণ কামনায় বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করেন, হযরত সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল হাসানী ওয়াল হোসাইনী মাইজভাণ্ডারী (মাদ্দাজিল্লুহুল আলি)।