ভাসানচরে যেতে প্রস্তুতি নিচ্ছেন আরও অনেক রোহিঙ্গা

প্রকাশিত: ৬:২৭ অপরাহ্ণ , ডিসেম্বর ৯, ২০২০

ভাসানচরে স্থানান্তরিতদের নানা সুযোগ-সুবিধার খবরে সেখানে যেতে আগ্রহী আরও অনেক রোহিঙ্গা। কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের বিভিন্ন ক্যাম্পের অনেকে ভাসানচর যেতে প্রস্তুতি নিচ্ছেন। একটি মহল ভাসানচর যেতে নিরুৎসাহিত করলেও স্বেচ্ছায় সেখানে যেতে রাজি রোহিঙ্গারা। 

প্রথম দফায় ৩ ডিসেম্বর উখিয়া ও টেকনাফের বিভিন্ন ক্যাম্প থেকে ১ হাজার ৬৪২ রোহিঙ্গাকে স্থানান্তর করা হয়েছে। ভাসানচরে যাওয়ার পর তারা মোবাইল ফোনে ভিডিও কলের মাধ্যমে উন্নত ব্যবস্থাপনার কথা জানায় স্বজনদের।

স্বজনদের কাছ থেকে উন্নত জীবন ও পরিবেশের কথা শুনে অন্যরাও ভাসানচর যেতে আগ্রহী। তবে ভাসানচরে না যেতে একটি মহল রোহিঙ্গাদের প্ররোচনা দিচ্ছে বলে জানান স্থানীয়রা।

কক্সবাজার পিপলস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মো. ফরহাদ ইকবাল বলেন, রোহিঙ্গাদের পুঁজি করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়া হয়েছিল সেই এনজিওগুলোর মদদে। কিছুসংখ্যক রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী যাতে অন্য রোহিঙ্গারা ভাসানচর যেতে না পারে তার জন্য নানা ধরনের হুমকি-ধমকি এবং বাঁধা সৃষ্টি করে আসছিল।

প্রশাসন বলছে, ১ লাখ রোহিঙ্গা স্থানান্তর হলে স্থানীয়দের উপর কিছুটা হলেও চাপ কমবে।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামাল হোসেন বলেন, অনেকেই স্বেচ্ছায় যাওয়ার জন্য প্রস্তুত আছে এবং আমাদের সরকারের পক্ষ থেকে সেই আয়োজনও আছে। পর্যায়ক্রমে ১ লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে নেয়ার যে প্রক্রিয়া রয়েছে সেটা অব্যাহত থাকবে। ভাসানচরে ১ লাখ রোহিঙ্গার জন্য রয়েছে উন্নত বাসস্থানসহ নানা সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত টেকসই অবকাঠামো।