দেশে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা দু’হাজার ছাড়াল।

প্রকাশিত: ৪:১৬ অপরাহ্ণ , জুলাই ৫, ২০২০

বৈশ্বিক মহামারী করোনায় বাংলাদেশে মৃত্যুর সংখ্যা দু’হাজার ছাড়িয়ে গেল। যতই দিন যাচ্ছে ততই এই করোনা ভাইরাস আমাদের সাথে চোখ রাঙাচ্ছে। ক্রমান্বয়ে বেড়েই চলেছে তার দাপট। পুরো বিশ্বজুড়ে এই মরণব্যাধি ভাইরাসের কারনে বহু মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। হারিয়েছে তাদের আপন জনকে। একমাত্র উর্পাজনকারী প্রিয়জনকে হারিয়ে অনেকে বিপর্যস্থ জীবন যাপন করছে। এই মহামারীর জন্য মানুষ স্বাভাবিক জীবনের ছন্দ অনেক আগেই হারিয়ে ফেলেছে। এখন মানুষ বেঁচে থাকার জন্যই নিত্যদিন এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছে। জানি না, কবে থামবে এর দাপট! তবে এটা নিশ্চিত করেই বলতে পারি এর শেষ একদিন হবেই ইনশাআল্লাহ। আবার হাসবে মানুষ, গাইবে গান। ফিরবে সামাজিক মেলবন্ধনে।

কোভিড ১৯ এর প্রকটতা এখনো বেড়েই চলেছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশে ও দেদারসে হু হু করে বেড়েই চলেছে এর সংক্রমণ। কোনভাবেই এখন পর্যন্ত এই ভাইরাস কে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হচ্ছে না। কোন কার্যকর প্রতিষেধক এখন পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে আবিস্কৃত হয় নি। আর এই করোনা ভাইরাস এতই ভয়াবহ যে, এটার কাছে কোন উঁচু নীচু ভেদাভেদ নাই। ধনী দরিদ্রের কোন বালাই নেই। সমাজের হাই প্রোফাইল চিনে না। ক্ষমতাবান থেকে শুরু করে একেবারে খেটে খাওয়া মানুষ পর্যন্ত কোন বৈষম্য করে না। মানে না কোন ভেদাভেদ। যখন যাকে ইচ্ছে করে বসছে সংক্রমণ। আর এই প্রভাবেই বিশ্বে ক্রমাগত ভাবেই বেড়েই যাচ্ছে দিন দিন আক্রান্তের এবং মৃত্যুর সংখ্যা।

বাংলাদেশে আজকে নতুন করে আরো ৫৫ জন মৃত্যু করেন। আজকে বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস সনাক্তের ১২০ তম দিন। গত ৮ ই মার্চ বাংলাদেশে করোনায় প্রথম রোগী সনাক্ত হয়। ৪ মাসের মাথায় দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দুই হাজার ছাড়িয়েছে। মোট মৃত্যু ২ হাজার ৫২ জন। নতুন আজকে সনাক্ত হয়েছে আরো ২ হাজার ৭৩৮ জন। আর আক্রান্তের সংখ্যা মোট ১ লাখ ৬২ হাজার ৪১৭ জন। যার এক লাখ আক্রান্তই হয়েছে গত এক মাসে। আর এখন পর্যন্ত দেশে করোনায় সুস্থ হয়েছেন ৭২ হাজার ৬২৫ জন।
এই করোনা থেকে রক্ষা পেতে অবশ্যই আমাদেরকে কিছু বিষয় মেনে চলতে হবে। যথাসম্ভব যেকোনো ধরনের ভীড় এড়িয়ে চলতে হবে। স্বাস্থ্য বিধি মেনে নিজে চলবো এবং অন্যকেও চলতে উৎসাহিত করবো। বেশি বেশি করে মহান সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ করবো এবং তার কাছেই সকল ধরনের সাহায্য চাইবো। আল্লাহ আমাদের সবাইকে হেফাজত করুন এবং আপনার অবারিত রহমত নাজিল করুন।

লেখকঃ কলামিস্ট,সংগঠক,সাংস্কৃতিক কর্মী এবং পুলিশ কর্মকর্তা।