দক্ষিণ আফ্রিকায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

প্রকাশিত: ৬:১০ অপরাহ্ণ , মার্চ ৩০, ২০২২

দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গ শহরের পাশ্ববর্তী নিউল্যান্ডস এলাকায় নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীদের গুলিতে এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছে। নিহতের নাম আবু তাহের মাসুদ রাব্বানী ফয়সাল (২৯)।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে।

তাঁর গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের কুলশ্রী গ্রামে। নিহত আবু তাহের মাসুদ রাব্বানী ফয়সাল চাটখিল উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের কুলশ্রী গ্রামের জিয়াউল হকের ছেলে। দুইভাই ও দুই বোনের মধ্যে সবার বড় ছিলেন রাব্বানী ফয়সাল। তিনি এক মেয়ের জনক।

এঘটনায় নিহতের বাড়িতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। কান্নায় ভেঙে পড়েছেন তার মা ঝর্ণা আক্তার, স্ত্রী ডলি’সহ পরিবারের লোকজন ও আত্মীয় স্বজনরা।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, জীবিকার সন্ধানে গত ২০১৫ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় যান আবু তাহের মাসুদ রাব্বানী ফয়সাল। পরে জোহানেসবার্গ শহরের নিউল্যান্ডস এলাকায় নিজে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চালু করেন তিনি। তার পাশে ব্যবসা করতেন ফয়সালের ভগ্নিপতি, তিনি বর্তমানে দেশে রয়েছেন। সবশেষ গত ২০২১ সালের জুনে বাড়ি আসার পর ডিসেম্বরে পুনঃরায় আফ্রিকায় ফিরে যান ফয়সাল।

নিহতের চাচা মো. মাহফুজ জানান, বুধবার সকালে আফ্রিকা থেকে তাদের মোবাইলে জানানো হয় আবু তাহের মাসুদের রক্তাক্ত লাশ তার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পড়ে আছে।

ওই তথ্যের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, প্রতিদিনের ন্যায় রাতে নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ করে ভেতরে ঘুমিয়ে পড়েন ফয়সাল। বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার প্রতিষ্ঠান থেকে ৫-৬ রাউন্ড গুলির শব্দ শুনতে পান পার্শ্ববর্তীরা। পরে তারা এগিয়ে গিয়ে প্রতিষ্ঠানের ভেতরে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন ফয়সালকে। এসময় তারা ফয়সালকে উদ্ধার করে স্থানীয় মেফেয়ারের নেটকেয়ার গার্ডেন সিটি হসপিটালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও বলেন, সবকিছু ঠিক থাকলে আগামি ২ এপ্রিল আবু তাহের মাসুদ রাব্বানী ফয়সালের লাশ বাংলাদেশে আনা হবে। পরবর্তীতে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।