এনজিও কর্মীর কব্জি কেটে ছিনতাই, নারীসহ গ্রেফতার ৪

প্রকাশিত: ৫:২৯ অপরাহ্ণ , ডিসেম্বর ১৭, ২০২০

নরসিংদীর ‘‘চাঞ্চল্যকর’’ এনজিও কর্মীর হাতের কব্জি কেটে টাকা ছিনতাই মামলার প্রধান আসামি রুবেল ও বাদশাকে তাদের দুই নারী সহযোগীসহ গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১। একইসঙ্গে উদ্ধার করা হয়েছে ছিনতাইকৃত টাকা। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের র‌্যাব-১১ সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব জানায়- গত ১৬ ডিসেম্বর দিবাগত রাতে নরসিংদী জেলার মাধবদী থানাধীন ঢাকা-সিলেট হাইওয়ের মাধবদী বাস স্ট্যান্ডে অভিযান চালিয়ে মামলার প্রধান আসামি মোঃ রুবেল মিয়া (২৬) ও আব্দুল বাদশা মিয়াকে (২২) গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামিদের থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে পরে তাদের অপর দুই সহযোগী মাহাবুবা আক্তার মেরিনা (২২) ও মিঠি বেগমকে (২৬) গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ছিনতাইয়ের নগদ ১ লাখ ৯১ হাজার ৫০০ টাকা, ১টি গেঞ্জি, ১টি ক্যাপ ও মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল খন্দকার সাইফুল আলম জানান, গত ১৫ ডিসেম্বর এনজিও আশা’র কর্মী শান্তা আক্তার (৩১) নরসিংদী শহরের পশ্চিমকান্দা পাড়া এলাকা থেকে ঋণের কিস্তির টাকা আদায় করে শহরের বাজিড় মোড়ের অফিসে ফেরার সময় গ্রেফতারকৃত আসামি মোঃ রুবেল মিয়া ও আব্দুল বাদশা মিয়া পূর্বপরিকল্পনা মতো রিকশার গতিরোধ করে এবং তার টাকা ভর্তি ভ্যানিটি ব্যাগটি রুবেল ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। তখন এনজিও কর্মী তার টাকার ব্যাগটি ধরে রাখতে চাইলে বাদশা তার হাতে থাকা চাপাতি দিয়ে এনজিও কর্মীর বাম হাতের কব্জিতে সজোরে কোপ দিলে হাত থেকে কব্জিটি বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। তাকে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় ফেলে রেখে টাকাভর্তি ব্যাগ ছিনতাই করে তারা কৌশলে পালিয়ে যায় এবং এনজিও কর্মীর ভ্যানিটি ব্যাগটি আগুনে পুড়িয়ে ফেলে।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় আশা এনজিওর ব্রাঞ্চ ম্যানেজার ইসমাইল শিকদার বাদী হয়ে নরসিংদী সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরই প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১১ গত ১৬ ডিসেম্বর দিবাগত রাতে নরসিংদী জেলার মাধবদী থানাধীন ঢাকা-সিলেট হাইওয়ে মাধবদী বাস স্ট্যান্ড এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে মামলার প্রধান আসামি মোঃ রুবেল মিয়া ও আব্দুল বাদশা মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়।

তাদের প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে নরসিংদী জেলার মাধবদী থানাধীন খাদিমাচর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে সহযোগী মাহাবুবা আক্তার মেরিনাকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তার হেফাজত হতে ছিনতাইয়ের নগদ  ১ লাখ ৯১ হাজার ৫০০ টাকা উদ্ধার করা হয় এবং নরসিংদী জেলার নরসিংদী সদর থানাধীন ব্রাহ্মণপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপর সহযোগী মিঠি বেগমকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তার হেফাজত হতে সিসিটিভি ক্যামেরায় ধারণকৃত রুবেলের পরিহিত ১টি গেঞ্জি, বাদশার মাথায় পরিহিত ১টি ক্যাপ ও ভিকটিমের মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামিদেরকে নরসিংদী জেলার নরসিংদী সদর মডেল থানায় সোপর্দ করা হবে বলেও জানায় র‍্যাব।