টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত

প্রকাশিত: ২:৩৭ অপরাহ্ণ , জুলাই ২২, ২০২০

কক্সবাজারের টেকনাফে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব-১৫) সদস্যদের সঙ্গে গোলাগুলির ঘটনায় রশিদুল্লাহ নামে এক রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত হয়েছে। এ সময় র‍্যাবের দুইজন সদস্য আহত হন। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে।
টেকনাফ (সিপিসি-১) র‍্যাব ক্যাম্পের কর্তব্যরত অপারেশন কমান্ডার (এএসপি) বিমান চন্দ্র কর্মকার এই অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান আজ বুধবার ভোরে টেকনাফে দায়িত্বরত র‍্যাব-১৫ (সিপিসি-১) এর সদস্যরা গোপন সংবাদে জানতে পারে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের দমদমিয়া সেন্টমার্টিন কেয়ারী জাহাজ ঘাট সংলগ্ন ১৪ নম্বর ব্রিজের পাহাড়ি এলাকায় অপরাধ সংঘটিত করার জন্য একদল ডাকাত অবস্থান করছে।
এমন তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাবের একটি চৌকষ অভিযানিক টিম অভিযানে যায়। এরপর ডাকাত দলের সদস্যরা র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলিবর্ষণ শুরু করলে র‍্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুঁড়ে। এতে উভয়পক্ষের গোলাগুলি থেমে যাওয়ার পর র‍্যাব সদস্যরা গুলিবিদ্ধ হয়ে পড়ে থাকা এক ডাকাতকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্থাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
নিহত ডাকাত হচ্ছেন, মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা শরণার্থী শিবিরে আশ্রিত রোহিঙ্গা সফিক উল্লাহ’র ছেলে রশিদুল্লাহ (২৮)। সে পাহাড়ে লুকিয়ে থাকা ডাকাত খালেক গ্রুপের সক্রিয় সদস্য।
ঘটনাস্থল তল্লাশি করে দেশীয় তৈরি দুটি এলজি ও পাঁচ রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে র‍্যাব-১৫ সদস্যরা।
তিনি আরও জানান, মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনি কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।