২১ ঘণ্টা পেরোলেও উদ্ধার হয়নি তেলবাহী ট্রেনটি

প্রকাশিত: ৯:৫৪ পূর্বাহ্ণ , নভেম্বর ৮, ২০২০

দীর্ঘ ২১ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে তেলবাহী ট্রেনের ইঞ্জিনসহ ৬টি বগি এখনো উদ্ধার হয়নি। এরইমধ্যে দুর্ঘটনার কারণে ট্যাঙ্ক লিকেজ হয়ে একলাখ ৬০ হাজার লিটারের মতো তেল পড়ে গেছে।

রোববার (৮ নভেম্বর) সকালেও এলাকাবাসী ভিড় করে তেল সংগ্রহ করছেন। সিলেটের সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। দুর্ঘটনার প্রায় ৭ ঘণ্টা পর রিলিফ ট্রেন ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করে। শনিবার (৭ নভেম্বর) রাতে ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

শনিবার সন্ধ্যায় ট্যাঙ্ক লিকেজ হওয়ায় তেল সংগ্রহকে কেন্দ্র করে জিআরপি পুলিশের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষে এক পুলিশ সদস্যসহ ৫ জন আহত হন।

শনিবার সকাল ১১টা ৪০ মিনিটের দিকে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসে সিলেটগামী তেলবাহী ট্রেনটি। শ্রীমঙ্গলের সাতগাঁও রেলস্টেশন এলাকার ১৪৪ নম্বর ব্রিজের পৌঁছালে ট্রেনটি প্রচণ্ড বেগে ঝাঁকি দেয়। এরপর ইঞ্জিনসহ একে একে ছয়টি বগি লাইনচ্যুত হয়ে উল্টে যায়। দুমড়ে মুচড়ে যায় রেল লাইনের প্রায় আধা কিলোমিটার স্লিপার। এতে বন্ধ হয়ে যায় সিলেটের সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ।

দুর্ঘটনার কারণে ট্যাঙ্ক লিকেজ হয়ে একলাখ ৬০ হাজার লিটারের মতো পেট্রোল, কেরোসিন ও ডিজেল মাটিতে পড়ে যায়। এর আগেও শ্রীমঙ্গলের সাতকাউর রেলস্টেশন এলাকায় বেশ কয়েকবার ট্রেন দুর্ঘটনা হলেও লাইন সংস্কারে নেয়া হয়নি তেমন কোনো উদ্যোগ।

শ্রীমঙ্গল রেল স্টেশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার শাখওয়াত হোসেন জানান, বগি লাইনচ্যুত হওয়ার পর সাধারণ মানুষ তেল সংগ্রহ করছেন। বগিগুলোতে এক লাখ ৬০ হাজার লিটার অকটেন, ডিজেল ও কেরোসিন ছিল। ## সময় টিভি