পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে হিটস্ট্রোকে খনি শ্রমিকের মৃত্যু।

মনজুরুল হক মঞ্জু মনজুরুল হক মঞ্জু

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৭:২০ অপরাহ্ণ , জুলাই ১৪, ২০২২

পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে সেরাজুল ইসলাম নবাব (৪০) নামের এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।
বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ইলেকট্রনিক শাখায় তিনি মারা গেছেন। বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চীনা সিএমসির এক্সএমসির অধীনে কয়লা উৎপাদনের কাজ করতো।
নবাব পার্বতীপুর উপজেলার হামিদপুর ইউনিয়নের ঘুঘুমারি বর্ণমালা গ্রামের রাহেরুল হকের ছেলে।
বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান বলেন, তার কোনো অসুখ ছিল না। তিনি আরও জানান, গত ২ জুন তারিখে খনির কোয়ারেন্টাইনে ৭ দিন থাকার জুনের ১২ তারিখে কাজে যোগ দেন। বুধবার রাত ১১টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার শিফটের কাজ শেষ করে তার রুমে আসার সময় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে। এ সময় তার সহকর্মীরা সেরাজুলকে খনির অভ্যন্তরের হাসপাতালে নিয়ে গেল সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।
খনি শ্রমিকেরা অভিযোগ করেন, গত ৩ জুন পরিবারের সদস্যদের রেখে খনিতেই ঈদ করতে হয়েছে। সারা দেশে স্বাভাবিকভাবে সকল অফিস আদালত চললেও, শুধু খনি কর্তৃপক্ষ খনিতে লকডাউন করে রেখেছে, যার কারণে শ্রমিকেরা মাসের পর মাস পরিবার পরিজনকে ছেড়ে খনির ভেতরে টিনের ঘরে গাদাগাদি করে বসবাস করে খনিতে কাজ করতে হচ্ছে, এতে তারা প্রায় সময় অসুস্থ হয়ে পড়ছেন।
বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক সুলতান মাহমুদ, ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন খনিতে এক শ্রমিক সেরাজুল ইসলামের মৃত্যু হয়েছে।
পার্বতীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. হামিদুল্লাহ কে মোবাইল ফোনে বার বার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।
দুপুরের প্রচ- রোদে ভারী কাজ বা শারীরিক ব্যায়াম করা থেকে বিরত থাকতে হবে। গরমে বাইরে বের হলে সাদা বা হালকা রঙের কাপড় পরতে হবে।
বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রকৌশলী মো. কামরুজ্জামান চীনা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের এক শ্রমিক হিট স্ট্রোকে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।