ভারতে মহানবী (সা.) কে কটুক্তির প্রতিবাদে বশেমুরবিপ্রবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ৪:২৫ অপরাহ্ণ , জুন ১০, ২০২২

মহানবী হযরত মুহাম্মদ(সা.) ও হযরত আয়েশা (রা.) কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির জ্যেষ্ঠ দুই নেতার কটুক্তি ও চরম অবমাননাকর মন্তব্যের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

আজ শুক্রবার (১০ জুন) বাদ জুমা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট্রাল মসজিদ থেকে বের হয়ে ছাত্রদের হলরোডে প্রায় তিনশতাধিক শিক্ষার্থীর উপস্থিতিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ক্যালিফোর্নিয়া রোড হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জয়বাংলা চত্ত্বরে গিয়ে মিছিলটি সমাপ্ত হয়। বিক্ষোভ মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়৷ এসময় শিক্ষার্থীরা ঘটনাটির প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি রাষ্ট্রীয়ভাবে নিন্দা জানানোর দাবি জানান।

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী রাজন শিকদার বলেন, “মুসলমানরা বেচে থাকতে আল্লাহর রাসুলকে নিয়ে কটুক্তি করা হবে আর মুসলমানরা বেচে থাকবে, এই বেচে থাকার স্বার্থকতা নেই। তাই নিজ নিজ জায়গা থেকে সাধ্যমতো এই অন্যায়ের প্রতিবাদ করা উচিৎ। আমরা দেখেছি বিভিন্ন সময় বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মুহাম্মদ (সা.) কে কটুক্তি ও অবমাননা করা হয়। এসব কটুক্তিকারিরা কিন্তু আল্লাহর রাসুলের আদর্শকে গ্রহণ করেনা। তাই মুসলমানদেরকেই নবিজির আদর্শ গ্রহণ করতে হবে, প্রত্যেকটা সুন্নত খুঁজে খুঁজে পালন করতে হবে। আজ এই সমাবেশ থেকে আমরা শপথ নেই রাসুলের আদর্শকে গ্রহণ করবো, সুন্নত প্রাক্টিস বাড়িয়ে দিবো।

বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি (বিএমবি) বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আল আমিন হোসেন বলেন, আজ দুঃখ ভারাক্রান্ত মন নিয়ে হাজির হয়েছে। শুধু ভারত নয়, সারা পৃথিবী জুড়ে বারবার মুসলিমদের উপর, নবীর উপর আক্রমন করা হয়। আমরা বলে দিতে চাই, বিশ্বের যেকোন জায়গায় যদি মুসলমানকে আঘাত করা হয়, নবীকে অপমান করা হয় আমরা এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবো ইনশাআল্লাহ। কারণ মুহাম্মদ (সা:) বলেছেন, মুসলমানরা এক দেহের ন্যায়। এর কোনো অংশে আঘাত লাগলে পুরো শরীরে ব্যথা হয়।

তিনি আরও বলেন, বিজেপি সরকার বিশ্বের সবচেয়ে উগ্রবাদী, সাম্প্রদায়িক ও মৌলবাদী সরকার। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মুসলিম প্রধানরা ভারতকে বয়কট করেছেন, তাদের পন্য বয়কট করছেন কিন্তু আমাদের প্রধানমন্ত্রী মুখে কুলুপ এঁটে বসে আছেন। আমরা আপনাকে বলতে চাই আমাদের নবীকে নিয়ে যে কটুক্তি করা হয়েছে আপনি প্রতিবাদ জানিয়ে সংসদে নিন্দা জ্ঞাপন করুন।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ভারতীয় একটি টেলিভিশন বিতর্কে অংশ নিয়ে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) ও তার স্ত্রী আয়েশা (রা.) সম্পর্কে অবমাননাকর বক্তব্য দেন নুপুর শর্মা। পরে একই বিষয়ে টুইটারে পোস্ট দেন নাভিন কুমার জিন্দাল। এ নিয়ে মুসলিম সম্প্রদায়ের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ইতোমধ্যে এ ঘটনায় বিশ্বের অনেক মুসলিম দেশ প্রতিবাদ জানিয়ে ভারতকে বয়কট করেন।