আন্তর্জাতিক মণিপুরী সাহিত্য সম্মেলনে যোগ দিবেন কুবি শিক্ষক

প্রকাশিত: ৬:৪৮ অপরাহ্ণ , অক্টোবর ১৮, ২০২২

বাংলাদেশ মণিপুরী সাহিত্য সংসদ (বামসাস) কর্তৃক আয়োজিত ‘৭ম আন্তর্জাতিক মণিপুরী সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্মেলনে’ বিশেষ অতিথি হিসেবে যোগ দিবেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. জি.এম. মনিরুজ্জামান।

সোমবার (১৭ অক্টোবর) বাংলাদেশ মণিপুরী সাহিত্য সংসদের সভাপতি এ. কে. শেরামের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্যটি নিশ্চিত করেন।

‘বাংলাদেশ মণিপুরী সাহিত্য সংসদ’ বাংলাদেশের মণিপুরীদের সবচেয়ে প্রাচীন ও প্রতিনিধিত্বশীল সাহিত্য সংগঠন। গত ৪৭ বৎসর ধরে এই সংগঠন বাংলাদেশে মণিপুরী সাহিত্য চর্চা ও এর বিকাশের লক্ষ্যে নিরবচ্ছিন্নভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বিগত বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও আগামী ৪ নভেম্বর সিলেটে এই সম্মেলনের আয়োজন হতে যাচ্ছে। ভারতের মণিপুর এবং ত্রিপুরা রাজ্য থেকে মণিপুরী সাহিত্যের বিশিষ্টজনেরা এই অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। জাতীয় ও স্থানীয় পর্যায়ের বাংলা সাহিত্যের অনেক বিদগ্ধ লেখক-সাহিত্যিকও এই অনুষ্ঠানের অংশ নিবেন।

এই সেমিনারে যাওয়া প্রসঙ্গে অধ্যাপক ড.জি.এম. মনিরুজ্জামান বলেন, বাংলাদেশে মণিপুরী সাহিত্যের স্বপ্নযাত্রা’ অধিবেশনে বিশেষ অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ পেয়ে আমি আনন্দিত এবং গর্বিত। ২০০২ সাল থেকে আমি আদিবাসী নিয়ে গবেষণা করে আসছি। আমার ২০ বছর যাবত গবেষণার প্রেক্ষিতে এ অধিবেশনে আমন্ত্রণ পেয়েছি। এর আগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএস এ আন্তর্জাতিক আদিবাসী জাতিসত্তা সম্মেলনে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলাম। সেটিও আমার জন্য আনন্দের বিষয় ছিলো।

তিনি আরো বলেন, জাতিসংঘ প্রতি বছরই বিশ্ব আদিবাসী দিবস পালন করে থাকে। সেখানে আলোচনার বিষয় থাকে আদিবাসীদের বিলুপ্ত ভাষা সংরক্ষণ করা, তাদের জীবনযাত্রা সহজ করা। বাংলাদেশ চল্লিশের অধিক আদিবাসী রয়েছে। বাংলাদেশের সাহিত্য বলতে তাদের আলাদা করে দেখার সুযোগ নেই বরং তাদের সাহিত্য এবং বাঙালির বৃহৎ জনগোষ্ঠী সাহিত্যের সমন্বয়ে এক সমৃদ্ধ সাহিত্য গড়ে উঠা সম্ভব। এই বৈচিত্র্যময় সাহিত্যের জন্যই হয়তো কেউ নোবেল পুরস্কার পাবে।

Loading