টিপ পরা পুরুষ অভিনেতাদের নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়

প্রকাশিত: ৮:০১ অপরাহ্ণ , এপ্রিল ৭, ২০২২

পুলিশ সদস্য কর্তৃক কপালে টিপ পরা কলেজের শিক্ষিকাকে কটূক্তি করার ঘটনায় সর্বত্র নিন্দার ঝড় ওঠে। জাতীয় সংসদ থেকে শুরু করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সব জায়গায় জানানো হয় প্রতিবাদ। সবাই এই প্রতিবাদে শামিল হলেও পুরুষের কপালে টিপ পরা নিয়ে শুরু হয় নতুন সমালোচনা। বিষয়টি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছে তোলপাড়।

নারীদের পাশাপাশি সাজু খাদেম, প্রাণ রায়, আনিসুর রহমান মিলন, স্বাধীন খসরু, মনোজ প্রামাণিক, চিত্রনায়ক সাইমন সাদিকসহ বেশ কয়েকজন পুরুষ অভিনেতা টিপ পরে নিজ নিজ ফেসবুক অ্যাকাউন্টে টিপ পরা ছবি দিয়েছেন। এই ঘটনায় আবার নতুন করে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে।

অনেকে বিষয়টিকে সাধুবাদ জানালেও অধিকাংশই নেটিজেনরাই এটিকে ভালো চোখে দেখছেন না। তাদের ভাষ্য মতে, প্রতিবাদ করুক তাতে সমস্যা নেই, কিন্তু কপালে টিপ দিয়েই কেন প্রতিবাদ করতে হবে?

নেটিজেনদের পাশাপাশি সমালোচকদের কাতারে যোগ দিয়েছেন আরেক অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমান। যে সব অভিনয়শিল্পী টিপ পরেছেন তাদের ‘পাগল’ বলে সম্বোধন করে ফেইসবুকে স্টাট্যাস দেন। সেখানে টিপ পরা অভিনেতাদের ছবি দিয়ে ক্যাপশনে লেখেন, ‘আমরা কি দিন দিন পাগল হয়ে যাচ্ছি? আল্লাহপাক সবাইকে এই সমস্ত পাগলের হাত থেকে হেফাজত করুক। মাহে রমজানের পবিত্রতা রক্ষা করুন। আল্লাহ সবাইকে ক্ষমা করুক। আমিন।’

নেটিজেনদের কেউ কেউ কটাক্ষের সুরে বলছেন, আজ কপালে টিপ পরে প্রতিবাদ করে সবকিছু উল্টায় ফেলছেন, কিছুদিন পর হয়তো শুনব আপনারাও মা হতে চলেছেন।

আবার কেউ অতীতে বোরখা পরা নারীরা ভিন্ন সময় নানাভাবে লাঞ্চিত বা অপদস্ত হওয়ার ঘটনায় এসব অভিনেতারা নিরব ছিলেন বিধায় তাদের কঠোর সমালোচনা করেছেন।

এর আগে গত শনিবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে রাজধানীর ফার্মগেট এলাকায় কপালে টিপ পরে কর্মস্থলে যাওয়ার পথে তেজগাঁও কলেজের শিক্ষক ড. লতা সমাদ্দার এক পুলিশ সদস্য কর্তৃক হেনস্থার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন ওই শিক্ষক। ইতোমধ্যে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যকে সনাক্ত করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।