আশুলিয়ায় ৩ অপহরণকারী আটক; অপহৃত যুবক উদ্ধার

প্রকাশিত: ৪:২২ অপরাহ্ণ , জানুয়ারি ২০, ২০২২

আশুলিয়ায় অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে তিন অপহরণকারীকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় অপহৃত যুবককে উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হারুন অর রশিদ।

এর আগে গত কাল বুধবার (১৯ জানুয়ারি) দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে আশুলিয়ার কুরগাঁও নতুনপাড়া এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ইকরাম (২৫) নামের আরও এক অপহরণকারী পালিয়ে যায়।

আটককৃতরা হলো- দিনাজপুর জেলার পাবর্তীনগর থানার মশথপুর গ্রামের মৃত কাজল হোসেনের ছেলে ইয়াছিন (১৯), কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ থানার দিগারহাওলা গ্রামের রুবেল মিয়ার ছেলে অন্তর (২০) ও ঝিনাইদাহ জেলার কালিগঞ্জ থানার মইশা হাটা গ্রামের তোতা মিয়ার ছেলে শাহিন (১৯)। বর্তমানে তারা সবাই আশুলিয়ার কুরগাঁও এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতো বলে জানা যায়। অপহৃত যুবকের নাম মাকসুদুল হক (২১)। সে নরসিংদী জেলার শিবপুর থানার দক্ষিণ সাদার চর গ্রামের আব্দুর রব এর ছেলে। সিঙ্গাপুর গমনের উদ্দেশ্যে বর্তমানে সে আশুলিয়ার গৌরিপুর এলাকার সিবিটি সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টারে ট্রেনিং করছেন।

অপহৃত যুবকের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, বুধবার রাতে মাকসুদুল তার বন্ধুকে গ্রামের বাড়ি খুলনায় যাওয়ার জন্য গাড়িতে উঠিয়ে দিতে নবীনগর বাসস্ট্যান্ডে আসেন। পরে তাকে একটি গাড়িতে উঠিয়ে দিয়ে ট্রেনিং সেন্টারের দিকে ফিরে যেতে থাকেন। এমন সময় ফুটওভার ব্রিজ পারি দিয়ে সেনাশপিং কমপ্লেক্স এর সামনে নামলে একটি রিকশা পুর্ব পরিকল্পিত ভাবে তার উপর উঠিয়ে দেয়। এতে সে আহত হলে তাকে চিকিৎসার কথা বলে অপহরণ করে কুরগাও এলাকার মাতৃছাড়া স্কুলে নিয়ে যায় অপহরণকারীরা। পরে তার নিকটে থাকা নগদ ১৫শ টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। পরে মোবাইলের বিকাশ বা রকেটের পিন নাম্বার জানতে চায়। পিন নাম্বার না বলায় তাকে বেধর মারপিট করে ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়।

পরে তার পরিবারের কাছে ফোন দিয়ে মুক্তিপোন হিসেবে ২০ হাজার টাকা দাবি করে। তখন তার বোন বিকাশের মাধ্যমে ৪ হাজার ৫শ টাকা পাঠায়। এ খবর শুনে তার বন্ধু জরুরী সেবার নাম্বার ৯৯৯ এ ফোন করে। ফোন পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অপহৃত যুবককে উদ্ধার করে। এ ঘটনার সাথে জড়িত তিন অপরহণকারীকে আটক করে। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আরোও কয়েকজন পালিয়ে যায়।

উক্ত বিষয়ে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হারুন অর রশিদ বলেন,জরুরী সেবার নাম্বার (৯৯৯) থেকে কল পেয়ে বিকাশ লেনদেনের সূত্রধরে আশুলিয়ার কুরগাঁও এলাকা থেকে অপহৃত যুবককে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনার সাথে জড়িত তিনজনকে আটক করা হয়েছে। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে একজন পালিয়ে যায়। এছাড়া তিনি আরও বলেন, আটকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে দুপুরে তাদেরকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।