সৌদি ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান

প্রকাশিত: ৬:০৯ অপরাহ্ণ , নভেম্বর ৫, ২০২১

সৌদি আরবের হাইল প্রদেশের ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশের বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রদূত হাইলের চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি আবদুল আজিজ খালাফ আল জাকদির সাথে বৈঠককালে তিনি এ আহ্বান জানান।

রাষ্ট্রদূত বলেন, সৌদি ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বের আওতায় বিনিয়োগ করতে পারে। সম্প্রতি এ বিষয়ে সৌদি আরবের সাথে বাংলাদেশের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হওয়ায় এ সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে অর্থনৈতিক অঞ্চলসমূহে বিনিয়োগে এগিয়ে আসার জন্য সৌদি ব্যবসায়ীদের অনুরোধ করেন। সৌদি ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে সকল সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এ সময় চেম্বার সভাপতি বাংলাদেশের হালনাগাদ অর্থনৈতিক অগ্রগতি, সম্ভাব্য ব্যবসায়িক খাতসমূহ যেখানে প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা রয়েছে এবং সৌদি আরবের সাথে ব্যবসা করার সুযোগ রয়েছে সে সম্পর্কে সাম্প্রতিক তথ্য প্রদানের অনুরোধ জানান। এছাড়া বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের ব্যবসায়িক খাতসহ বিস্তারিত প্রোফাইল পাঠাতে অনুরোধ করেন, যা চেম্বার সদস্যদের মাঝে বিতরণ করা হবে এবং বাংলাদেশের সাথে ব্যবসা করতে উদ্বুদ্ধ করবে।

চেম্বার সভাপতি আরো জানান, তারা বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে এবং বাংলাদেশের বিনিয়োগ ও ব্যবসার সুযোগের সাথে সক্রিয়ভাবে জড়িত হয়ে সফলতার অংশীদার হতে চায়। হাইল চেম্বার বাংলাদেশকে তাদের পরবর্তী ব্যবসায়িক গন্তব্য হিসেবে বিবেচনা করছে বলে জানান চেম্বার সভাপতি।

এ সময় রাষ্ট্রদূত ঔষধ শিল্পে বাংলাদেশের অগ্রগতি তুলে ধরে বাংলাদেশ থেকে প্রয়োজনীয় ঔষধ আমদানির জন্য ব্যবসায়ীদের অনুরোধ জানান। এছাড়া বাংলাদেশের হস্তশিল্প, সিরামিক, তৈরি পোশাক ও চামড়াজাত পণ্য আমদানির জন্য ও ব্যবসায়ীদের অনুরোধ করেন রাষ্ট্রদূত।

সৌদি আরবের বাণিজ্যিক গোপনীয়তা বিরোধী আইনের বিষয় তুলে ধরে চেম্বার সভাপতিকে রাষ্ট্রদূত জানান, অনেক বাংলাদেশি অভিবাসী ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা নিবন্ধন করতে আগ্রহ প্রকাশ করছে। কিন্তু তারা দ্বিধার মধ্যে রয়েছে। এ প্রেক্ষিতে তাদেরকে দূতাবাস থেকে বিভিন্ন সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়া অভিবাসী বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের নিয়ে নিয়মিত পরামর্শ সভা ও করা হচ্ছে। রাষ্ট্রদূত অভিবাসী বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা নিবন্ধনে যেনো কোন হয়রানির শিকার না হন সে বিষয়ে চেম্বার সভাপতিকে অনুরোধ করেন। তিনি চেম্বার সভাপতিকে বাণিজ্যিক গোপনীয়তা বিরোধী আইন বিষয়ে কোন পরামর্শমূলক সভা আহবান করলে দূতাবাস ও অভিবাসী বাংলদেশিদের অন্তর্ভুক্ত করার অনুরোধ জানান।

রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী সৌদি আরবের ভিশন-২০৩০ বাস্তবায়ন ও বাংলাদেশের ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়নে একযোগে কাজ করার বিষয়ে সহায়তা কামনা করেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী হাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি রেক্টর ড. রাশিদ বিন মুসলাত আল শরীফের সাথে বৈঠক করেন। এ সময় তিনি সৌদি আরবের সবুজায়ন উদ্যোগের আওতায় মরুভূমির উপযোগী বৃক্ষরোপণ, মরুভূমির বিলুপ্ত বৃক্ষসহ বিভিন্ন বিষয়ে বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে ফেলোশীপের আওতায় যৌথ গবেষণার প্রস্তাব দেন। এছাড়া এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশের ছাত্রদের বৃত্তি বৃদ্ধির জন্য অনুরোধ করেন। হাইল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রায় ৩২ হাজার শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করছে। এ বিশ্ববিদ্যালয় মধ্যপ্রাচ্যে তিন নম্বর র‍্যাংকিং এ অবস্থান করছে।

এ সকল সভায় দূতাবাসের ইকনমিক কাউন্সেলর মুর্তুজা জুলকার নাঈন নোমান ও কাউন্সেলর মোঃ বেলাল হোসেন উপস্থিত ছিলেন।