উখিয়া ক্যাম্প থেকে অস্ত্রসহ ১১ রোহিঙ্গা গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: ১০:১৬ পূর্বাহ্ণ , মার্চ ২৯, ২০২১

কক্সবাজারের উখিয়াস্থ রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ১১ জন যুবককে গ্রেপ্তার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)। রোববার (২৮ মার্চ) দুপুর ১টার দিকে উখিয়ার পালংখালী ১৬নং শফিউল্লাহ কাটা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে স্থানীয় ও রোহিঙ্গাদের বাড়ি ঘর ভেঙ্গে লুটপাটের সময় অস্ত্রসহ তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- উখিয়ার পালংখালী নলবনিয়া এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলে ওবায়ুর (৩০), পালংখালী এলাকার মো. হোসেনের ছেলে আব্দুল হামিদ (২৮), শফিউল্লাহ কাটা এলাকার আব্দুল হকের ছেলের রিপন (২৪), একই এলাকার মো. ফকিরের ছেলে মিজান (২২), নলবনিয়া এলাকার হোসেন আহমেদর ছেলে আব্দুল রশিদ (৩০), পালংখালী এলাকার জাহিদ হোসেনের ছেলে আব্দুল হক (২০), নলবনিয়া এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে ইমরান হোসেন (প্রকাশ ইরাইন্যা) ডাকাত (২৮), মোছার খোলা এলাকার আবুল কাশেমের ছেলের নূর মোহাম্মদ (২১), নলবনিয়া এলাকার আব্দুল মোনাফের ছেলে আরিফ (২৯), পালংখালী ভাদীতলা এলাকার আব্দুল গফুরের ছেলে সিরাজুল ইসলাম (২২), কক্সবাজার পেকুয়া এলাকার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী সালামত উল্লাহর ছেলে মো. হেলাল।

কক্সবাজার ১৬নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দায়িত্বরত ‘এপিবিএন’ পুলিশের (ওসি) আমিনুল হক জানিয়েছেন, উখিয়ার শফিউল্লাহ কাটা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের হামিদ উল্লাহর ছেলে এয়াকুবের চায়ের দোকান থেকে এই ১১ জন স্থানীয় যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। ১৬নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে বেশ কয়েকটি চায়নিজ কুড়াল উদ্ধার করা হয়।

উখিয়া থানা ওসি আহমদ সনজুর মোরশেদ জানিয়েছেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে গ্রেপ্তারকৃত সন্ত্রাসীরা অপহরণ চক্রের সক্রিয় সদস্য। তাদের বিরুদ্ধে কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন থানায় অস্ত্র ও মাদকের কয়েক ডজন মামলা রয়েছে।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। তারা দীর্ঘদিন ধরে রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রিক মাদক, অপহরণসহ নানাকাজে জড়িত ছিল বলেও জানান তিনি।