কিশোরী পুত্র বধুকে ধর্ষণ চেষ্টা, শ্বশুর আটক

প্রকাশিত: ৮:৪২ পূর্বাহ্ণ , মার্চ ২২, ২০২১

ফেনীর সােনাগাজীতে এক কিশােরী পুত্রবধূকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযােগে মাে. মানিক মিয়া নামে এক শ্বশুরকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সােপর্দ করেছে এলাকাবাসী। রােববার সকালে উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের চরলামছি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ, ভুক্তভােগি পরিবার ও এলাকাবাসী জানায়, নােয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চরহাজারী গ্রামের মাে, মানিক মিয়ার ছেলে মাে. ওমর ফারুক (২২) প্রেমের সম্পর্কের জেরে সােনাগাজী উপজেলার চরলামছি গ্রামের এক দিনমজুরের কন্যা নবম শ্রেনির এক শিক্ষার্থীকে স্ট্যাম্পের মাধ্যমে বিয়ে করেন। গত ২২জানুয়ারি তাদের এই বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়ের পর থেকে ফারুক তার শ্বশুর বাড়িতে অবস্থান নেয়। গত ১৭ মার্চ ফারুক শ্বশুর বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। এঘটনা জানার পর ফারুকের পিতা মাে. মানিক মিয়া তাদের বিয়ের সম্পর্ক মেনে নেবেন বলে শনিবার রাত ১০টার দিকে ছেলের শ্বশুর বাড়িতে যান। রাত একটার দিকে শ্বশুর মানিক মিয়া পুত্রবধূর শয়ন কক্ষে ঢুকে কিশােরী পুত্রবধূকে জোরপূর্ব ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। কিশােরী বধূর আত্মচিৎকারে তার পিতা-মাতা সহ প্রতিবেশীরা ছুটে এসে শ্বশুর মানিক মিয়াকে আটক করে গণপিটুনি শুরু করে।
সােনাগাজীতে কিশােরী পুত্রবধূকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযােগে শ্বশুর মানিক মিয়া কে পুলিশ আটক করে। সে পেশায় একজন পিকআপ চালক। তার ছেলে ওমর ফারুক একজন দিন মজুর। এ ব্যাপারে কিশােরী বধূর মা বাদি হয়ে সােনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। সােনাগাজী মডেল থানার ওসি সাজেদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।