আশুলিয়ায় জাল দলিল করতে এসে পুলিশের হাতে আটক দম্পতি

প্রকাশিত: ১:০৩ পূর্বাহ্ণ , মার্চ ১১, ২০২১

ঢাকার আশুলিয়ায় জাল দলিল করার সময় এক দম্পতিকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে সাব-রেজিষ্ট্রার অফিসের কর্মকর্তাগণ। এ সময় তাদের ভূয়া কাগজপত্র জব্দ করা হয়। বুধবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন আশুলিয়ার সাব-রেজিষ্ট্রার মো. রেজাউল করিম। এরআগে মঙ্গলবার দুপুরে আশুলিয়ার সাব-রেজিষ্ট্রার অফিস থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

আটক দম্পতি হলো- নারায়নগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও থানার সাদিপুর নয়াপাড়া গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে আবু সাঈদ (৩৩) ও তার স্ত্রী শামীমা (৩০)। তারা উভয়ে আশুলিয়ার কুরগাঁও টাটিবাড়ী এলাকায় বসবাস করতো।

জানা যায়, আটকদের মধ্যে ১নং আসামী শামীমা আশুলিয়ার সেনওয়ালীয়া মৌজার সি এস খতিয়ান নং- ৪৫/৭, এস এ ৬০, আর এস ১০০, বি আর এস ৪৯৩, খতিয়ানের বি আর এস ৪৯৪ জোতভ’ক্ত সি এস ও এস এ দাগ নং-২৩ আর এস দাগ নং- ৫৭, বি আর এস-১৭৩০, দাগের ০.৭৫৬ অযুতাংশের জমির মালিক হিসেবে ২নং আসামী আবু সাঈদকে জমি দান করার উদ্দেশ্যে দলিল করার জন্য সাব-রেজিষ্ট্রার অফিসে যায়। এ সময় সাব-রেজিষ্ট্রার নাম ও ঠিকানা জিজ্ঞাসা করলে জমির আসল মালিকের নাম না বলে নিজের নাম প্রকাশ করে। এতে সাব-রেজিষ্ট্রারের সন্দেহ হলে তাদেরকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। সাব-রেজিষ্ট্রার রেজাউল করিম জানান, মঙ্গলবার দুপুরে আটকরা সেনওয়ালিয়া মৌজার একটি জমির দলিল করার জন্য আমার নিকট আসে। এমন সময় দাতার নাম জানতে চাইলে তিনি দলিলের নাম-ঠিকানা না বলে তার প্রকৃত নাম প্রকাশ করেন। এতে জমির দলিলের সাথে তার নামের অমিল ঘটে। এতে আমার সন্দেহ হলে আমি বিষয়টি আরও গুরুত্ব দিয়ে যাচাই-বাছাই করি। পরে আমরা বুঝতে পারি জমিটি আত্মসাৎ করার উদ্দেশ্যে তাকে জমির মালিক সাজিয়ে জমির ভায়া দলিল করতে আসছে একটি চক্র। পরে তাদেরকে আটক করে পুলিশে খবর দেই। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এ সময় তাদের তৈরীকৃত সকল ভায়া কাগজপত্র জব্দ করা হয়।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুদীপ কুমার গোপ জানান, জাল দলিল করার সময় সাব-রেজিষ্টার তাদেরকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। আটকদের বিরুদ্ধে আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।