বাংলাদেশ- ভারত মৈত্রী সেতুুর উদ্বোধন।

বাহার উদ্দিন বাহার উদ্দিন

রামগড় প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১০:৫৬ অপরাহ্ণ , মার্চ ৯, ২০২১

খাগড়াছড়ির রামগড় সাব্রুম সীমান্তে ফেনী নদীর উপর নির্মিত বাংলাদেশ- ভারত মৈত্রী সেতুর উদ্বোধন করা হয়েছে।
ডিজিটাল পদ্ধতি ব্যবহার করে মঙ্গলবার( ৯ মার্চ) দুপুরে ঢাকা থেকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও নয়াদিল্লী থেকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করেন।
সেতুটি পুরোপুরি কার্যকর করা হলে বাংলাদেশ-ভারত দু’দেশের মধ্যে ট্রানজিট সুবিধা, যাতায়াত ব্যবস্থা এবং আমদানি-রফতানি সহজতর হবে। পরস্পরের মধ্যে কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় হবে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।
এদিকে সেতুর উদ্বোধন করা হলেও তা পুরোপুরি কার্যকর করা এখনই সম্ভব হচ্ছে না।এ বিষয়ে গত ৫ মার্চ সেতু পরিদর্শন শেষে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাসুদ বিন মোমেন সাংবাদিকদের বলেন, সেতুটি পুরোপুরি কার্যকর করতে আমাদের আরও প্রস্তুতি ও সময়ের প্রয়োজন রয়েছে।
প্রসঙ্গত, ২০১০ সালে জানুয়ারি মাসে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বৈঠকে রামগড় স্থলবন্দর চালুর সিদ্ধান্ত হয়।২০১৫ সালের ৬ জুন বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সেতু১ এর ভিত্তিপ্রস্তর ফলক উম্মোচন করা হয়। ২০১৭ সালের অক্টোবর থেকে সেতুটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়ে শেষ হয় গত জানুয়ারি মাসে। এতে নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছিল ৮২.৫৭কোটি টাকা।২৮৬ একর জমির ওপর ৪১২ মিটার দৈর্ঘ্য ১৪.৮০ মিটার প্রস্থ সেতুটি তৈরি করেন ভারতের ন্যাশনাল হাইওয়ে এন্ড ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভলপমেন্ট কর্পোরেশন লিমিটেড(এনএইচআইডিসিএল) এবং ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান তানিশ চন্দ্র আগারভাগ ইনপাকন প্রাইভেট লিমিটেড।