পার্বতীপুরে কৃষিভিত্তিক শিল্প প্রতিষ্টান গড়ে উঠছে না

মনজুরুল হক মঞ্জু মনজুরুল হক মঞ্জু

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২:০৮ অপরাহ্ণ , ডিসেম্বর ২৫, ২০২০

রেলওয়ে জংশন খ্যাত পার্বতীপুর উপজেলায় কৃষি ভিত্তিক ক্ষুদ্র শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠার উজ্জল সম্ভাবনা থাকা সত্বেও সরকারি পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে কৃষি ভিত্তিক শিল্প প্রতিষ্টান গড়ে উঠছে না। মুলত ব্যাংক ঋণ ও প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণের অভাবে তা সম্ভব হচ্ছে না। এখানকার মোট জনসংখ্যার শতকার ৮৫ ভাগ মানুষ গ্রামে বাস করে। এদের মধ্যে ৭৫ ভাগ মানুষ কৃষির উপর নির্ভরশীল। দেশের উদ্বিত্ত খাদ্য ভান্ডার হওয়া সত্বেও যোগাযোগ, শিক্ষা, শিল্প-বাণিজ্য এবং কৃষি ক্ষেত্রে অনেক পিছিয়ে রয়েছে পার্বতীপুর। এখানকার মানুষের আর্থ সামাজিক উন্নয়নে কোন সরকারই তেমন কোন উল্লেখ যোগ্য ভূমিকা রাখেনি। যার কারনে পার্বতীপুরে বেকারত্ব দিন দিন আশঙ্কাজনক ভাবে বেড়ে যাচ্ছে। জনসংখ্যা বৃদ্ধির ফলে আবাদি জমির পরিমান কমে যাওয়ায় বেকারত্ব আরো প্রকট আকার ধারন করছে।
পার্বতীপুর উপজেলায় হিমাগার, গার্মেন্টস ফ্যাক্টরী, ডেইরী র্ফাম, প্লাস্টিক কারখানা, মাংস প্রক্রিয়াজাতকরন, গ্লাস ফ্যাক্টরী, হাঁস মুরগির খামার, পশুখাদ্য তৈরির কারখানা, কৃষি যন্ত্রপাতির কারখানা, গরু মোটাতাজাকরন, বীজ সংরক্ষন, চকলেট তৈরির কারখানা সহ বিভিন্ন ধরনের ক্ষূদ্র শিল্প প্রতিষ্টান গড়ে তোলার উজ্জল সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু সরকারি ও বাস্তবমুখী প্রশিক্ষনের অভাবে এসব শিল্প ও কৃষি ভিত্তিক বানিজ্য প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠছে না। এসব ক্ষুদ্র শিল্প প্রতিষ্ঠানের মূখ্য হাতিয়ার যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর এবং বিভিন্ন এনজিও সংস্থা ও প্রতিষ্ঠিত শিল্পপতিগণ এ বিষয়ে উদ্যোগী হলেও আইন ও প্রশাসনিক জটিলতার কারনে তাদের উদ্যোগ ব্যর্থতায় পর্যবসিত হচ্ছে।
বেকার যুবকদের উৎসাহিত করন, প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষন, চাহিদা অনুসারে ব্যাংক ঋণের ব্যবস্থা ও আইনের জটিলতার নিরসন করা হলে অবহেলিত পার্বতীপুর উপজেলায় বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান এবং স্বনির্ভর করে গড়ে তোলা সম্ভব বলে সচেতন মহল মনে করেন। পার্বতীপুরে অধিকাংশ বেকার যুবক বিভিন্ন প্রকার মাদকদ্রব্য সেবন, চোরাচালান সিন্ডিকেটের সাথে দিন দিন জড়িয়ে পড়ছে। অনেকেই তাদের মুল্যবান জীবনকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। পার্বতীপুর উপজেলায় রয়েছে কৃষি ভিত্তিক শিল্প প্রতিষ্টান স্থাপনের জন্য পর্যাপ্ত পরিমানে খাস ও রেলওয়ে ভুমি। এসব ভূমি বন্দোবস্ত নিয়ে সেখানে শিল্প প্রতিষ্টান গড়ে তোলা হলে বেকার যুবকদের কর্মসস্থান হবে এবং সেই সাথে এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হবে। দেখা যাচ্ছে যে, পার্বতীপুর উপজেলায় যথেষ্ট সম্ভাবনা থাকা সত্বেও নতুন কোন শিল্প প্রতিষ্টানতো গড়ে উঠছেই না পক্ষান্তরে আর্থিক সংকট ও সরকারি সহযোগিতার অভাবে পার্বতীপুরের জাহানাবাদ দাঁড়ারপাড় গ্রামের সবক‘টি তাঁত শিল্প বন্ধ হয়ে গেছে। তাঁতশিল্পের সাথে জড়িত কয়েকশ শ্রমিক কর্মহীন অবস্থায় পরিবার পরিজন নিয়ে আজও চরম দুঃখÑকষ্টের মধ্যে দিন যাপন করছে। নতুন কর্মের সন্ধ্যানে তারা ছুটছে।