রামগড়ে সীমিত কর্মসূচিতে মহান বিজয় দিবস উদযাপিত।

বাহার উদ্দিন বাহার উদ্দিন

রামগড় প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১২:২৩ অপরাহ্ণ , ডিসেম্বর ১৬, ২০২০

যথাযোগ্য মর্যাদায় রামগড়ে উদযাপিত হয়েছে মহান বিজয় দিবস। করোনা পরিস্থিতিতে এবার সীমিত কর্মসূচির মাধ্যমে দিবসটি উদযাপন করা হয়।
উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে সূর্যোদয়ের সাথে রামগড় লেকপার্কে বিজয় ভাস্কর্য চত্বরে থানা পুলিশের ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসের সুচনা হয়। পরে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি ভাস্কর্য ‘বিজয়’ এর বেদীতে একে একে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। উপজলা চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদীপ কার্বারির নেতৃত্বে উপজেলা পরিষদ, উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মু. মাহমুদ উল্লাহ মারুফের নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসন, রামগড় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সৈয়দ মোঃ ফরহাদের নেতৃত্বে পুলিশ প্রশাসন, মেয়র মোহাম্মদ শাহজাহান কাজী রিপনের নেতৃত্বে রামগড় পৌরসভার পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ করা হয়। এছাড়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, উপজেলা আওয়ামীলীগ, উপজেলা ও পৌর যুবলীগ, উপজেলা জাতীয় পার্টি, রামগড় প্রেসক্লাব, উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ, সরকারি ডিগ্রি কলেজ, সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, আইডিয়াল স্কুল, মুুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড, লেডিস ক্লাব, হর্টিকালচার সেন্টার, বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ, ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরাম, রামগড় বাজার পরিচালনা কমিটি, ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদসহ স্থানীয় বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ কর হয়।
পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ শেষে বিজয় ভাস্কর্য চত্বরে আনুষ্ঠানিকভাবে উত্তোলন করা জাতীয় পতাকা। পরে বীর শহীদদের আত্মার শান্তি ও দেশের সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।
মহান বিজয় দিবসের এসব কর্মসূচিতে অন্যান্যের মধ্যে রামগড় সরকারি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ নুরুন্নবী , উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মুহাম্মদ জয়নুল আবেদীন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার ফারুক, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাছিনা আক্তার, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সজীব কান্তি রুদ্র, রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শামসুজ্জামান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ মোস্তফা হোসেন, সাধারণ সম্পাদক কাজী নুরুল আলম আলমগীর , সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোঃ মফিজুর রহমান, রামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহা আলম মজুমদার, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল আলম কামালসহ বিভিন্ন বিভাগের সরকারি কর্মকর্তা, শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক, সামাজিক নেতৃবৃন্দ ও সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।
উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ভার্চুয়াল আলোচনা, অন লাইন চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।সরকারি বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, ধর্মীয় উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনা, হাসপাতালে উন্নতমানের খাবারেরও ব্যবস্থা করা হয়।