ঠাকুরগাঁওয়ে ফেয়ার প্রাইস ও টিসিবি ডিলারকে মারপিট, হুমকি ও চাঁদাদাবীর অভিযোগ

এন এন রানা এন এন রানা

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৫:০০ অপরাহ্ণ , নভেম্বর ২৪, ২০২০

জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার ভোমরাদহ ইউনিযনের ফেযারপ্রাইস ও টিসিবি’র ডিলার ওমর ফারুককে মারপিট, হুমকি-ধুমকি এবং ৫০ হাজার টাকা চাঁদাদাবীর অভিযোগে আইনগত ব্যবস্থার জন্য পীরগঞ্জ থানায় ৪ নভেম্বর লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে।
জানা যায় ভোমরাদহ ইউনিয়ন ফেয়ারপ্রাইস ও টিসিবি ডিলার ওমর ফারুক তার নিজস্ব গুদাম থেকে সম্প্রতি ১০ টাকা মূল্যের ফেয়ার প্রাইসের সরকারী চাল বিতরন কালে স্থানীয় ভোমরাদহ ইউনিয়ন আ’লীগ নেতা আব্দুস সালাম রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে নিজের তৈরী করা ভুয়া কার্ড দিয়ে চাল নেয়ার চেষ্টা করলে তা ডিলারের হাতে ধরা পড়ে। এর পরেও সে পেশি শক্তির প্রভাবে চাল নিতে চাইলে উভয় পক্ষের মধ্যে বাক-বিতন্ডা হয়। এ সময় সন্ত্রাশী সালাম ওরফে মুরগী সালাম ডিলারকে মারধর করে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি করে এবং অকথ্য ভাষা প্রয়োগে গালাগালি করে পরিবেশ উত্তপ্ত করে তোলে।
খাদ্য বিভাগের নিযুক্ত ট্যাগ অফিসারের উপস্থিতিতে এই রাজনৈতিক সন্ত্রাশী তার জোর জবরদস্তি অব্যাহত রাখে। সালাম ৫০ হাজার টাকা চাঁদা না পেলে ডিলারশীপ চালাতে দেবেনা মর্মে প্রকাশ্য হুমকি দেন। তিনি বলেন, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি হক সাহেব সহ অন্যান্য নেতারা আমার পকেটে থাকে। তাদের ক্ষমতা ব্যবহার করে আমি তোমার ২ টি ডিলারশীপ বাতিল করার জন্য যা কিছু করা দরকার আমি করব। তার এমন হুমকি এবং অত্যাচারে ডিলারশীপ চালানো অসম্ভব হয়ে পড়েছে। তাই বিষয়টির আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ডিলার ওমর ফারুক বাদী হয়ে সন্ত্রাশী আব্দুস সালামের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ গত ৪ নভেম্বর পীরগঞ্জ থানায় দাখিল করা হয়। বিষয়টি থানায় সাধারন ডাইরীভুক্ত হয়েছে এবং আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের প্রক্রিয়ায় রয়েছে বলে জানান থানার অপিসার ইনচার্জ প্রদীপ কুমার রায়।
একইভাবে বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে পরামর্শ করে তার বরাবরেও একটি লিখিত অভিযোগ দেযা হয়েছে। ইউএনও বিষয়টি ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সহকারী কমিশনার(ভূমি)’র কাছে প্রেরণ করেছে। এ বিষয়ে ইউনিয়ন আ’লীগ নেতা আব্দুস সালামকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, আমি যা করেছি ঠিক করেছি কারন ডিলারশীপ চালাতে হলে আমাকে ম্যানেজ করে চালাতে হবে নাহলে আমি তার ডিলারশপি বাতিলের জন্য উদ্যগ গ্রহন করব। তার বিুদ্ধে এলাকার লোকজন দিয়ে গণপিটিশন করব, তাকে বিভিন্ন মামলায় ফাসাবো। আমার বিরুদ্ধে কারো কিছুই করার নেই। বিষয়টি প্রশাসনের উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ প্রয়োজন বলে সচেতন মহল মনে করছে।