দুই লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবাসহ পাঁচ রোহিঙ্গা আটক

প্রকাশিত: ৬:৪৮ অপরাহ্ণ , নভেম্বর ৫, ২০২০
Five Rohingyas, were detained along with 240,000 pieces of yaba, rtv news

কক্সবাজার ও টেকনাফে বিজিবি পৃথক অভিযান চালিয়ে দুই লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও পাঁচ রোহিঙ্গা রোহিঙ্গাসহ সাত পাচারকারীকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, কক্সবাজার-মিয়ানমার সীমান্তের ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের রেজুআমতলী আমবাগান এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুই লাখ পিস ইয়াবা নিয়ে পাঁচ রোহিঙ্গাসহ ছয়জনকে আটক করেছে কক্সবাজার ৩৪ বিজিবি ব্যাটালিয়ন সদস্যরা।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে ৩৪ বিজিবি রেজুআমতলী বিওপির সদস্যরা এ অভিযান চালান বলে জানিয়েছেন ৩৪-বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ।

আটকরা হলো, কক্সবাজারের উখিয়ার থ্যাইংখালীর মো. মীর আহম্মেদ ছেলে মো. জয়নাল আবেদীন (২৫), কুতুপালং লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১ ব্লকের ফকির আহম্মেদের ছেলে মো. রহমত উল্লাহ (২৫), একই ক্যাম্পের মো. নূর মোহাম্মদের ছেলে মো. মাহমুদুল হাসান (২১), আব্দুল আলিমের ছেলে মো. সেলিম (২২), মো. সোনা আলীর ছেলে মো. আমিন (২২) ও মৃত আলী হোসেনের ছেলে মো. জিয়াবুল হক (২৬)।

কক্সবাজার-৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ জানান, গোপন সংবাদে খবর আসে কক্সবাজার-৩৪ ব্যাটালিয়নের রেজুআমতলী বিওপির আমবাগান সীমানা দিয়ে কতিপয় ইয়াবা ব্যবসায়ী বিপুল পরিমাণ ইয়াবা নিয়ে মিয়ানমার হতে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে রেজুআমতলী বিওপির একটি বিশেষ অভিযানিক টহল দল সীমান্তের তিন নম্বর ঘুমধুম ইউপির রেজুআমতলী আমবাগান নামক স্থানে ফাঁদ পাতে। সকাল সাড়ে আটটার দিকে সীমান্ত থেকে ছয়জন বাংলাদেশের দিকে আসতে দেখে টহল দল তাদেরকে চ্যাঞ্জেল করলে তারা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। ধাওয়া দিয়ে তাদের আটকের পর শরীর তল্লাশি করে কোমরে লুঙ্গি ও গামছা দ্বারা অতি কৌশলে লুকায়িত অবস্থায় বিপুল পরিমাণ ইয়াবা জব্দ করা হয়। পরে গুণে সেখানে দুই লাখ পিস বার্মিজ ইয়াবা পাওয়া যায়।

এদিকে টেকনাফ-২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান জানান, টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উলুবনিয়া মধ্যমপাড়া গ্রামে একটি বড় চালান পাচার হতে পারে। এমন সংবাদে বিজিবির একটি বিশেষ টহল দল কৌশলে অবস্থান নেয়। পরে একজন ব্যক্তি একটি ব্যাগ হাতে নিয়ে সীমান্ত হয়ে মধ্যমপাড়ার দিকে আসতে থাকে। অবস্থান নেয়া বিজিবি সদস্যরা চ্যালেঞ্জ করলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে তাকে আটক করে তার কাছে থাকা ব্যাগ তল্লাশি করে ২০ হাজার অপর একটি স্থান থেকে ২০ হাজার মোট ৪০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। আটককৃত ব্যক্তি উলুবনিয়া এলাকার মো. মীর কাশেমের ছেলে মো. ফয়সাল হোসেন।
তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।