পটুয়াখালীতে সমকামিতার অভিযোগে দু‘কিশোরী আটক

প্রকাশিত: ৫:৫৩ অপরাহ্ণ , অক্টোবর ২৮, ২০২০

সমকামিতার অভিযোগে পটুয়াখালীতে কলেজ পড়ুয়া দু‘কিশোরীকে আটক করা হয়েছে। আজ বুধবার পটুয়াখালী লঞ্চঘাট থেকে এদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। র‌্যাব-৮‘র পটুয়াখালী ক্যাম্পের সদস্যরা অভিযান চালিয়ে অপ্রাপ্ত বয়স্ক ওই দু’কিশোরীকে আটক করে। এরা ঢাকা থেকে সুন্দরবন-৯ লঞ্চযোগে পটুয়াখালী আসে। এদের একজনের (১৫) বাড়ি পটুয়াখালীর বাউফলে ও অপরজনের বাড়ি গলাচিপায় (১৫) এবং একজন উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেনীতে ও অপর জন এসএসসি পরীক্ষার্থী।

পটুয়াখালী র‌্যাব ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার ও সহকারী পরিচালক মোঃ রবিউল ইসলাম স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানা গেছে, চলতি বছরের জানুয়ারিতে ফেইসবুকের মাধ্যমে এদের পরিচয় হলে ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে তাদের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই মধ্যে বেশ কয়েক বার সরসরি দেখা-সাক্ষাতও হয়েছে তাদের। তারা অপ্রাপ্ত বয়স্ক হলেও তারা পালিয়ে গিয়ে বিবাহ করেছে এবং সমকামীতার সাথে জড়িত বলে র‌্যাবের জিজ্ঞাবাদে স্বীকার করেছে।
ভুক্তভোগির পরিবারের অভিযোগ যে গ্রেফতারকৃত মূল আসামী তার মেয়ের বয়স অল্প হওয়ায় এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে, মগজ ধোলাই করে, ফুসলিয়ে এবং একপযায়ে জোড় করে বাড়ি থেকে ঢাকায় নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে বাউফলের কিশোরীর পরিবার বাউফল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন। এবং অপহৃতা ভিকটিমকে উদ্ধারে র‌্যাবের সহযোগিতা কামনা করেন।
উদ্ধারকৃত ভিকটিম ও আটককৃত আসামীকে বাউফল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।এ ব্যাপারে ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে জেলার বাউফল থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছেন।

বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান জানান, উভয়ে কোশোরী হলেও এরা দু‘জন দুজনকে বিয়ে করেছে এবং তারা একে অপরকে প্রাণের চেয়েও ভালবাসে বলেও পুলিশকে জানিয়েছে। এ ব্যাপারে একটি অপহরণ মামলা হয়েছে এবং উভয়কে আদালতে সোপর্দ করা হবে। আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী এ ব্যাপারে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে, জানান ওসি।