দুর্ধর্ষ কিশোরগ্যাং লিডার হাসিব মির্জা গ্রেফতার

প্রকাশিত: ১০:১০ পূর্বাহ্ণ , জুন ২১, ২০২২

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে ওমর আল হাসিব ওরফে হাসিব মির্জা (২৫) নামে এক কিশোরগ্যাং লিডারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে ইউপি চেয়ারম্যানকে হত্যার চেষ্টাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

সোমবার (২০ জুন) সিসিটিভির ফুটেজ দেখে থানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে বিকালে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাদেকুর রহমান। হাসিব মির্জা চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের আবুল কাশেমের ছেলে।

ওসি বলেন, আসামি ওমর আল হাসিব চরকাঁকড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. হানিফ সবুজের ওপর হামলার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। এছাড়া তার বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) পুষ্প বরণ চাকমা বলেন, সকালে থানার সিসিটিভির ফুটেজে আসামি হাসিব মির্জার ঘোরাঘুরির দৃশ্য দেখে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। হাসিব চেয়ারম্যান হানিফ সবুজের বাবার দায়ের করা মামলার ২০ নম্বর আসামি।

গত ৬ জুন দুপুরে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য ওমর ফারুক সবুজের অনুসারীরা হামলা চালিয়ে একই ইউপির চেয়ারম্যান মো. হানিফ সবুজ ও সদস্য শেখ ফরিদকে মারাত্মক জখম করেন। আহত চেয়ারম্যান হানিফ সবুজকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় হানিফ সবুজের বাবা ২২ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় মামলা দায়ের করেন।

অন্যদিকে, গত ১৯ আগস্ট রাত ৮টায় তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে হাসিব মির্জার নেতৃত্বে পেশকারহাট বাজারের জহিরুল হক সুবেলের মালিকানাধীন তানফি ক্রোকারিজ দোকানে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট করা হয়। সেদিন হাসিব মির্জার অস্ত্রহাতে দৃশ্যের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়।

স্থানীয় সূত্র জানায়, হাসিব এক সময় ইসলামী ছাত্রশিবিরের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকলেও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে বিরোধ শুরু হলে তিনি কাদের মির্জার গ্রুপে যোগ দেন। ফেসবুকে নিজের নামের সঙ্গে মির্জা শব্দ জুড়ে দিয়ে এলাকায় অপকর্ম করে আসছিলেন।