পায়ে শিকল বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ

সিলেটে বৃদ্ধ মনাই গৃহবন্দি

প্রকাশিত: ৬:৫০ অপরাহ্ণ , জুলাই ১৫, ২০২০

সিলেট অফিস :
বড় ভাইকে পাগল বলে আখ্যায়িত করে সম্পত্তি আত্মসাৎ করার জন্য একটি বদ্ধ ঘরে জিঞ্জির দিয়ে পায়ে বেধে অমানবিক ভাবে নির্যাতন করছে। দিনের পর দিন উপোস থাকা অবস্থায় এবং ছোট ভাইদের নির্যাতনের শিকার হয়ে সিলেট শহরের মেন্দিবাগ নিবাসী মনাই মিয়া মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। তাকে একটিবারের জন্য পায়ের শিকল খুলে ঘর থেকে বের হতে দেয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ রয়েছে।
জানা যায়, সিলেট শহরের ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের মেন্দিবাগ নিবাসী মৃত আহমদ মিয়ার বড় পুত্র মন্নান মিয়া ওরফে মনাই তার জানমালের নিরাপত্তা চেয়ে গত ৭/১১/২০১৯ ইংরেজি তারিখে
সিলেটের কোতোয়ালি মডেল থানায় তার আপন ছোট ভাই মুহিন মিয়া ও মখলিছ মিয়ার বিরুদ্ধে একটি জিডি এন্ট্রি করে। ৭/১১/১৯ তারিখে দায়ের করা জিডির নম্বর ৫২০।
জিডি এন্ট্রি করার এই খবর পেয়ে ছোট দুই ভাই জিডি প্রত্যাহার করার জন্য মনাই মিয়াকে চাপ প্রয়োগ ও জিডি প্রত্যাহার না করলে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এক পর্যায়ে ছোট ভাই মখলিছ মিয়া বড় ভাই মনাই মিয়ার উপর আক্রমণ চালায়। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে মখলিছ মিয়া সামান্য আহত হয়। এ নিয়ে সে মনাই মিয়ার বিরুদ্ধে
কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে।
অভিযোগটি আমলে নিয়ে পুলিশ মনাই মিয়াকে আটক করে। মনাই মিয়া একমাস জেল খেটে জামিনে বের হয়ে এলে আবার তার উপর নেমে আসে নির্যাতনের স্টিমরোলার।ছোট ভাইয়েরা তাকে ছোট্ট একটি রুমে আটকে রেখে হাত পায়ে শিকল বেঁধে দিনের-পর-দিন নির্যাতন করে আসছে।
তাকে দুবেলা-দুমুঠো নিয়মিত খাবার দেয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগে প্রকাশ।
কোন ব্যক্তিকে হাত পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রেখে নির্যাতন করা মানবাধিকার পরিপন্থী। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জরুরী ভিত্তিতে পদক্ষেপ গ্রহণ করে বৃদ্ধ মনাই মিয়াকে শিকলবন্দি অবস্থা থেকে উদ্ধার করে তাকে তার সম্পত্তির ন্যায্য অংশ পেতে আইনি সহায়তা প্রদান করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করা যাচ্ছে।