বাংলাদেশি মেয়েকে বিয়ে করলেন তামিলনাড়ুর নারী

প্রকাশিত: ৪:৪৩ অপরাহ্ণ , সেপ্টেম্বর ৪, ২০২২

এবার বাংলাদেশি মেয়ে টিনা দাসকে বিয়ে করেছেন ভারতের তামিলনাড়ুর নারী নারী সুবিক্ষা সুব্রামণি। চেন্নাইয়ে গত বুধবার এ বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। তারা স্ত্রী এবং স্ত্রী হিসাবে থাকার প্রতিজ্ঞা করেন।

কানাডার ক্যালগারিতে বসবাস করা তামিলনাড়ুর মেয়ে সুবিক্ষা বলেন, ‘এটা ছিল আমরা যা স্বপ্ন দেখেছিলাম, কিন্তু কখনই সম্ভব হবে তা ভাবিনি।’

সুবিক্ষার স্ত্রী টিনা বাংলাদেশের একটি হিন্দু পরিবারের মেয়ে। টিনাও ক্যালগারিতে থাকেন। তারা ৬ বছর আগে ক্যালগারিতে একটি অ্যাপে মিলিত হয়েছিল। সেখান থেকেই তাদের পরিচয়।

সুবিক্ষা আরও বলেন, ‘আমাদের নিজ নিজ রীতি অনুযায়ী প্রতিটি আচার-অনুষ্ঠান করেছি। আমাদের প্রিয়জনরাও পাশে ছিলেন। আমরা আশীর্বাদ প্রাপ্ত।’
২৯ বছর বয়সী সুবিক্ষা একজন চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট হিসাবে কাজ করেন। তার বয়স যখন ১৯ তখন তিনি নিজেকে একজন সমকামী হিসাবে চিহ্নিত করেন।

সুবিক্ষা মা পূর্ণপুশকলা সুব্রামনি বলেন, ‘আমি মাদুরাইতে বড় হয়েছি এবং পরে কাতারে বসবাস করেছি। কানাডায় চলে যাওয়ার পরেই আমরা এমনকি কুইয়ার সম্প্রদায় সম্পর্কেও শিখেছি।’

আতঙ্ক প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রথম ও তাৎক্ষণিক ভয় ছিল যে ভারতে আমাদের বর্ধিত পরিবার আমাদের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করবে। আমাদের পরবর্তী ভয় ছিল সুবিক্ষার সঙ্গে সমাজ কীভাবে আচরণ করবে এবং মাতৃত্বের সম্ভাবনাগুলি পরিচালনা করা হবে।’

৩৫ বয়সী টিনার এর আগে এক পুরুষের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল। সেখানে তিনি চার বছর ঘর করেন। পরে তিনি নিজেকে লেসবিয়ান হিসাবে পরিচয় দিতে ভালোবাসতেন। বর্তমানে তিনি ক্যালগারির ফুটহিলস মেডিকেল সেন্টারের পেশেন্ট কেয়ারের কর্মরত।

তিনি বলেন, ‘আমি বাংলাদেশের মৌলভীবাজারে বড় হয়েছি। আমার বাবা-মা ও আমি ২০০৩ সালে মন্ট্রিলে এসেছিলাম। আমার বোনও বিয়ের পর এখানে বসবাস করেন। যখন আমার বয়স ১৯ বছর তখন আমার একটি রোগের কারণে তারা ভেবেছিল বিয়ে হলে ঠিক হয়ে যাবে। সে কারণে সে সময় আমার বিয়ে হয়েছিল।

সুবিক্ষার সঙ্গে ডেটিং করার প্রায় চার বছর টিনার বড় বোন তার সঙ্গে সমস্ত যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় এবং তার পরিবারও দূরত্ব বজায় রাখে। তবে সুবিক্ষার সঙ্গে বিয়ের দিন তার চাচাতো ভাই পাশে ছিল এবং সংস্কৃত শিক্ষক সৌরভ বোন্দ্রে অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেছিলেন।

ভারতের চেন্নাইয়ে বিয়ে করা এই দম্পতি কানাডার ক্যালগারিতে ফিরে যাবেন বলে জানিয়েছেন। তার আগে এশিয়া জুড়ে ভ্রমণ করে তাদের হানিমুনও সেরে নিবেন বলে জানান।

এর আগে চলতি বছরে ভারতে নিজেকে নিজেই বিয়ে করেছিলেন দুই জন তরুণী। এর মধ্যে একজন ছিলেন অভিনেত্রী। এরপর নিজে নিজেই সেরে ফেলেন হানিমুন।