ওয়ারী লকডাউন

প্রকাশিত: ১০:১৯ পূর্বাহ্ণ , জুলাই ৪, ২০২০

করোনার বিস্তারে ‘রেড জোন’ হিসেবে চিহ্নিত পুরান ঢাকার ওয়ারী লকডাউন করা হয়েছে। ফলে এ এলাকার বাসিন্দারা জরুরি প্রয়োজন ছাড়া আগামী ২১ দিন ঘর থেকে বের হতে পারবেন না।আজ শনিবার (৪ জুলাই) ভোর ৬টা থেকে শুরু হয়েছে ‘লকডাউন’।
জানা গেছে, ওয়ারী এলাকার তিনটি রোড ও পাঁচটি গলি এই লকডাউনের অধীনে থাকবে। রোডগুলো হলো- টিপু সুলতান রোড, যোগীনগর রোড ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক (জয়কালী মন্দির থেকে বলধা গার্ডেন) পর্যন্ত। গলিগুলোর মধ্যে লারমিনি স্ট্রিট, হেয়ার স্ট্রিট, ওয়্যার স্ট্রিট, র‌্যাংকিং স্ট্রিট ও নবাব স্ট্রিট লকডাউনের আওতায় থাকবে।
লকডাউন কার্যকর করতে ইতোমধ্যে বিভিন্ন প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। প্রতিটি রাস্তা ও গলির মুখ বাঁশ দিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এছাড়া বিগত তিন দিন মাইকিং করে লকডাউনের প্রস্তুতিগুলো, সচেতনতা এলাকাবাসীর কাছে তুলে ধরা হয়েছে। ওয়ারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নমুনা সংগ্রহের জন্য বুথ স্থাপন করা হয়েছে। বিভিন্ন সড়কের মোড়ে মোড়ে লকডাউন এলাকার নাম ও কট্রোল রুমের জরুরি ফোন নম্বর উল্লেখ করে ব্যানার টানিয়ে দেয়া হয়েছে।
ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৪১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরোয়ার হোসেন জানালেন, লকডাউনের ২১ দিন ওয়ারীর বাসিন্দাদের মৌলিক চাহিদাগুলো পূরণ করবে সিটি করপোরেশন।
অপরদিকে ডিএমপির ওয়ারী জোনের ডিসি ইফতেখার আহমেদ বলেন, লকডাউন কার্যকরে ২৪ ঘণ্টা টহল দেবে পুলিশ। আইন অমান্য করলে তাৎক্ষণিক শাস্তি দেবে ভ্রাম্যমাণ আদালত। তবে লকডাউন কার্যকরে এলাবাসীকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে।
করোনার বিস্তার ঠেকাতে ২৬ মার্চ থেকে ৩০ এপ্রিল সারাদেশে লকডাউন চলে। এরপর বিধিনিষেধ শিথিল করা হলেও সংক্রমণ বাড়তে থাকায় এখন এলাকাভিত্তিক লেকডাউন হচ্ছে।
এর আগে ঢাকার রাজধানীর পূর্ব রাজাবাজারে পরীক্ষামূলকভাবে রেড জোন ঘোষণা করা ২১ দিন লকডাউন চলে।