প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের ৯৩তম জন্মবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত: ১:১০ অপরাহ্ণ , মার্চ ৯, ২০২২

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের ৯৩তম জন্মবার্ষিকী আজ। ১৯২৯ সালের ৯ মার্চ ভৈরব শহরের ভৈরবপুর গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

তার বাবা মরহুম মেহের আলী মিয়া ছিলেন প্রখ্যাত আইনজীবী ও ময়মনসিংহ লোকাল বোর্ডের তৎকালীন চেয়ারম্যান এবং জেলা বোর্ডের সদস্য। জিল্লুর রহমান ১৯৫৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাসে অনার্সসহ এমএ ও এলএলবি ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৫২ সালে তিনি ভাষা আন্দোলনে অংশ নেন। ১৯৫৬ সালে কিশোরগঞ্জ জেলা আ.লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন তিনি। ১৯৫২ সাল থেকে তিনি বঙ্গবন্ধুর সাথে আওয়ামী মুসলিম লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হন। তিনি ১৯৬২, ১৯৬৬ ও ১৯৬৯ সালের গণঅভ্যুর্থনের প্রতিটি আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন।

১৯৭০ সালে তিনি পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন। স্বাধীনতার পর তিনি আওয়ামী লীগের দুবার ও বাকশালের একবার সাধারণ সম্পাদক হন। ১৯৫৮ সালের ২৭ জুন তিনি ভৈরবের মেয়ে আইভি রহমানের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। তাদের বিয়ের স্বাক্ষী ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান।

১৯৭৫ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে ঘাতকরা হত্যা করলে সামরিক শাষকরা তাকে গ্রেফতার করে। ১৯৯৬ সালে আ.লীগ সরকার গঠন করলে তাকে মন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয়। তারপর ২০০৯ সালে আ.লীগ আবারও ক্ষমতায় এলে ওই সালের ১২ ফেব্রুয়ারী তিনি দেশের ১৯তম রাষ্ট্রপতি হন।

জিল্লুর রহমানের এক ছেলে নাজমুল হাসান পাপন ও দুই মেয়ে তানিয়া ও ময়না। ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় তার স্ত্রী আইভি রহমান নিহত হন। ২০১৩ সালের ২০ মার্চ তিনি অসুস্থ অবস্থায় সিঙ্গাপুর মাউথ এলিজাবেথ হাসপাতালে মারা যান।

আজ তার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ভৈরব উপজেলা আ.লীগ ও তার পরিবারের পক্ষ থেকে মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করা হয়।