ট্রলারডুবির চারদিন পর ভেসে উঠল ৪ মরদেহ

প্রকাশিত: ১১:২১ পূর্বাহ্ণ , জানুয়ারি ৯, ২০২২

নারায়ণগঞ্জে লঞ্চের ধাক্কায় ট্রলারডুবির ঘটনার পাঁচদিনের মাথায় ভেসে উঠেছে মা-মেয়েসহ ৪ জনের মরদেহ। ধলেশ্বরী নদী থেকে মরদেহগুলো উদ্ধার করেছে নৌ পুলিশ ও কোস্টগার্ড। এ ঘটনায় এখনও নিখোঁজ রয়েছেন আরও ৬ জন।

রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নদীর ধর্মগঞ্জ এলাকা থেকে নিখোঁজ জেসমিন ও তার মেয়ে তাসনিমের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এছাড়া বক্তাবলী এলাকায় থেকে ভাসমান অবস্থায় আরও দুই জনের মরদেহ উদ্ধার করে কোস্টগার্ড।

সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা রিফাত ফেরদৌস জানান, যেখানে ট্রলার ডুবেছে, সেখান থেকে কিছুটা দূরে দুটি মরদেহ ভেসে উঠতে দেখে খবর দেয় স্থানীয়রা। আমরা গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করেছি। একই পরিবারের যে চারজন নিখোঁজ ছিলেন, তাদের মধ্যে জেসমিন ও তার মেয়ে তাসনিমের মরদেহ ভাসমান অবস্থায় পাওয়া যায়।

একই সময়ে বক্তাবলী এলাকায় আরও দুটি মরদেহ ভেসে উঠে। সেগুলোও উদ্ধার করা হয়েছে, জানান ইউএনও রিফাত ফেরদৌস।

উল্লেখ্র, গত ৫ জানুয়ারি সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ফতুল্লায় ধলেশ্বরী নদীতে লঞ্চের ধাক্কায় ট্রলার ডুবে ১০ জন নিখোঁজ হন। অন্তত ৩০ যাত্রী বহনকারী ট্রলারটি এমভি ফারহান-৬ নামের লঞ্চের ধাক্কায় ডুবে যায়।

বেশির ভাগ যাত্রী সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও ওই ১০ জনকে পাওয়া যায়নি। আজ ৪ জনের মরদেহ উদ্ধারের পর নিখোঁজ রয়েছেন আরও ৬ জন।