চট্টগ্রামে এগারো ডিসেম্বর থেকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন

প্রকাশিত: ১:৫৯ অপরাহ্ণ , ডিসেম্বর ১০, ২০২১

শনিবার থেকে চারদিনব্যাপী জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন এর আওতায় চট্টগ্রামেও ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইন শুরু হবে। এদিন স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিশুদের ভিটামিন ‘ এ ‘ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে ।
নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে স্থায়ী ও অস্থায়ী টিকাদান কেন্দ্রে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী প্রায় ৮০ হাজার শিশুকে ১ টি করে নীল রঙের ভিটামিন ‘ এ ‘ ক্যাপসুল ( ১ লক্ষ ইউনিট ) এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী প্রায় ৪ লক্ষ ৫২ হাজার শিশুকে ১ টি উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন লাল রঙের ভিটামিন ‘ এ ‘ ক্যাপসুল ( ২ লক্ষ ইউনিট ) খাওয়ানো হবে। এছাড়াও জন্মের পরপর শিশুকে শালদুধ খাওয়ানোসহ প্রথম ৬ মাস শিশুকে শুধুমাত্র মায়ের দুধ খাওয়ানোর বিষয়ে ও শিশুর বয়স ৬ মাস পূর্ণ হলে মায়ের দুধের পাশাপাশি ঘরে তৈরি পরিমাণমতো সুষম খাবার খাওয়ানো বিষয়ে পুষ্টিবার্তা প্রচার করা হবে ।
ক্যাম্পেইনের আওতায় প্রত্যেক শিশুর স্বাস্থ্য সুরক্ষার স্বার্থে সম্ভাব্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া অবলোকন ও তাৎক্ষণিক চিকিৎসা প্রদানের লক্ষ্যে মনিটরিং টিম গঠন, সঠিকভাবে আইপিসি সম্পন্ন করা এবং ওয়ার্ড ভিত্তিক উদ্দিষ্ট শিশুর তালিকা সংরক্ষণ করা ও স্বেচ্ছাসেবী প্রশিক্ষণ সঠিকভাবে সম্পন্ন করা এবং ওয়ার্ডভিত্তিক মাইকিং জোরদার করা হবে।
ক্যাম্পেইন চলাকালীন সময়ে যে সকল শিশু ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়া থেকে বাদ যাবে তাদের পরবর্তীতে চসিক পরিচালিত দাতব্য চিকিৎসালয়, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র , সরকারি , বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও মাতৃসদন হাসপাতালে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াতে পারবে ।
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এলাকায় জাতীয় ভিটামিন ‘ এ ‘ প্লাস ক্যাম্পেইন সফলভাবে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে । ভিটামিন ‘ এ ‘ প্লাস ক্যাম্পেইন এর আওতায় সিটি কর্পোরেশন এলাকায় সকাল ৮টা হতে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে এ কর্মসূচী চলবে । ক্যাম্পেইন সফলভাবে বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট সকল সরকারি ,বেসরকারি সংস্থার কর্মকর্তাগণ , সকল জোনাল মেডিকেল অফিসার , মেডিকেল অফিসার , ইপিআই টেকনিশিয়ান , সুপারভাইজার , স্বাস্থ্য সহকারী , টিকাদান ও স্বাস্থ্যকর্মী এ কাজে নিয়োজিত থাকবেন । এ ক্যাম্পেইন সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য ইতোমধ্যে সিটি কর্পোরেশনের এনজিও কর্মকর্তা , সরকারি ও আধা সরকারি কর্মকর্তা, চিকিৎসক, সাংবাদিক, শিক্ষক ও অন্যান্য প্রতিনিধিদের নিয়ে কেন্দ্রীয়ভাবে এ্যাডভোকেসি সভা , ওয়ার্ড পর্যায়ে এ্যাডভোকেসি সভা ও স্বেচ্ছাসেবকদের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করা হয়েছে।
যেসকল স্বাস্থ্যকর্মী এবং নির্বাচিত স্বেচ্ছাসেবক এ ক্যাম্পেইনে দ্বায়িত্ব পালন করবেন নিয়মিতভাবে তাদের কোভিড -১৯ স্ক্রিনিং করা হবে। কোভিড -১৯ পরিস্থিতি সংক্রমণ প্রতিরোধ করার জন্য তারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে গাইড লাইন অনুসরন করে কেন্দ্রে শিশুদের ভিটামিন ‘ এ ‘ ক্যাপসুল খাওয়াবেন । ক্যাম্পেইন চলাকালীন সময়ে বিভিন্ন কেন্দ্রে সমূহ যেমন ইপিআই কেন্দ্র , কমিউনিটি ক্লিনিক ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র প্রভৃতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিশুদের ভিটামিন ‘ এ ‘ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে । এসময় সকলকে সামাজিক দুরত্ব মেনে চলতে হবে। এছাড়াও, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভিটামিন ‘ এ ‘ প্লাস ক্যাম্পেইন সংক্রান্ত সকল সভা ও কর্মশালা পূর্বের ন্যায় অনুষ্ঠিত হবে ।
আগামী ১১ ডিসেম্বর শনিবার সকাল ৯টায় সিটি কর্পোরেশন মেমন মাতৃসদন হাসপাতাল মিলনায়তনে নগরীতে জাতীয় ভিটামিন ‘ এ ‘ প্লাস ক্যাম্পেইন উদ্বোধন করবেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী।
চসিক প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আক্তার চৌধুরী চট্টগ্রামে ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন সফলভাবে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে চসিক জেনারেল হাসপাতালের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় আজ এসব তথ্য তুলে ধরেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আলী ও জোনাল স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ইমাম হোসেন রানা ।

Loading