করোনা টিকার প্রথম ৫৬,২৭, ১০৭ ও দ্বিতীয় ডোজ ৩,৮৩,৭১৭ জন নিয়েছেন

প্রকাশিত: ৯:৪২ অপরাহ্ণ , এপ্রিল ১১, ২০২১

দেশে এ পর্যন্ত ৫৬ লাখ ২৭ হাজার ১০৭ জন মানুষ করোনা টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন। এরমধ্যে ৩৪ লাখ ৮৯ হাজার ১২৫ জন পুরুষ এবং ২১ লাখ ৩৭ হাজার ৯৮২ জন নারী রয়েছেন। এদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২ লাখ ৭১ হাজার ৩৭০ জন পুরুষ ও ১ লাখ ১২ হাজার ৩৪৭ জন নারীসহ ৩ লাখ ৮৩ হাজার ৭১৭ জন করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন। এ ছাড়া আজ বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ৭০ লাখ ৩৯ হাজার ৬৭৩ জন মানুষ টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন।

আজ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মিজানুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, গত ২৪ ঘন্টায় সারাদেশে ২৩ হাজার ৬৫৭ জন করোনা টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন। এদের মধ্যে পুরুষ ১৪ হাজার ২৪৫ এবং নারী ৯ হাজার ৪১২ জন। আর দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ৬৫ হাজার ৬৯১ জন। এরমধ্যে পুরুষ ১ লাখ ১৪ হাজার ২৮৩ এবং নারী ৫১ হাজার ৪০৮ জন।

এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে টিকা গ্রহণ করেছেন ১৭ লাখ ৪০ হাজার ৫০২ জন। এরমধ্যে ঢাকা মহানগরীতে ৮ লাখ ৮৪ হাজার ৫৬৭ জন। ঢাকা বিভাগে দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ১১ হাজার ২১৮ ও ঢাকা মহানগরীতে নিয়েছেন ৫৬ হাজার ১৯১ জন।

ময়মনসিংহ বিভাগে টিকা নিয়েছেন ২ লাখ ৭৯ হাজার ৯২১ জন, এরমধ্যে দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেছেন ২০ হাজার ৫৩৩ জন। চট্টগ্রাম বিভাগে ১১ লাখ ৩৮ হাজার ৬৮৪ জন, এরমধ্যে দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেছেন ৮৮ হাজার ৩৪৬ জন। রাজশাহী বিভাগে ৬ লাখ ৪৪ হাজার ৭৪১ জন, এরমধ্যে দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেছেন ৩৮ হাজার ২৬৪ জন। রংপুর বিভাগে ৫ লাখ ৭৮ হাজার ১৮৬ জন, এরমধ্যে দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেছেন ৩৮ হাজার ৬৩৯ জন। খুলনা বিভাগে ৭ লাখ ১০ হাজার ২১৮ জন, এরমধ্যে দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেছেন ৪২ হাজার ৮১ জন। বরিশাল বিভাগে ২ লাখ ৪২ হাজার ৫৭৩ জন, এরমধ্যে দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেছেন ১৪ হাজার ৭১৯ জন এবং সিলেট বিভাগে ২ লাখ ৯২ হাজার ২৮২ জন, এরমধ্যে দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেছেন ২৯ হাজার ৯১৭ জন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৭ জানুয়ারি করোনার টিকা প্রদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। ওই দিন ২১ জনকে টিকা দেয়া হয়। পরদিন রাজধানীর ৫টি হাসপাতালে ৫৪৬ জনকে পর্যবেক্ষণমূলক টিকা দেয়া হয়েছিল। এরপর গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে দেশব্যাপী গণটিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। প্রথম টিকা নেয়ার ৬০দিন পর ৮ এপ্রিল থেকে দ্বিতীয় ডোজ দেয়া শুরু হয়েছে। দেশে টিকা গ্রহণকারী ব্যক্তিদের মধ্যে এখনো তেমন কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার খবর পাওয়া যায়নি।