পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা আত্মসাৎ মামলা: সাবেক ৬ এমডিসহ ২২ জন কারাগারে

মনজুরুল হক মঞ্জু মনজুরুল হক মঞ্জু

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৭:৪৪ অপরাহ্ণ , জানুয়ারি ১৩, ২০২১

পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির কয়লা আত্মসাৎ মামলায় বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের (বিসিএমসিএল) সাবেক ছয় ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ (এমডি) ২২ জন কর্মকর্তার জামিন বাতিল করে জেলা কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছে জেলা স্পেশাল জজ আদালত। বুধবার (১৩ জানুয়ারি) উভয় পক্ষের শুনানি শেষে স্পেশাল জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মাহমুদুল করিম কয়লা খনির সাবেক ছয় এমডিসহ ২২ জন কর্মকর্তার জামিন নামঞ্জুর করে জেলা কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেন। আদালত আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি এই মামলার পুনরায় চার্জ গঠন শুনানির দিন ধার্য করেছেন। দুদকের করা এই মামলাটি সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালত থেকে স্পেশাল জজ আদালতে প্রেরন করা হয়। সাবেক ছয় এমডি হলেন: আবদুল আজিজ খান, প্রকৌশলী খুরশীদুল হাসান, প্রকৌশলী কামরুজ্জামান, আমিনুজ্জামান, প্রকৌশলী এসএম নুরুল আওরঙ্গজেব ও প্রকৌশলী হাবিব উদ্দিন আহমেদ। অন্যান্য কর্মকর্তাদের মধ্যে সকলেই সাবেক ডিজিএম ও জিএম পর্যায়ের কর্মকর্তা। উল্লেখ্য, দুদক দিনাজপুর জেলা কার্যালয় ১ লাখ ৪৩ হাজার ৭২৭.৯৯ মেট্রিক টন কয়লা (যার আনুমানিক মূল্য ২৪৩ কোটি ২৮ লাখ টাকা) আত্মসাৎ মামলায় এসব কর্মকর্তাকে আসামি করে মামলা করে এবং গত বছরের ২৩ জুলাই তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক সামসুল আলমের পক্ষে দুদক দিনাজপুর সমন্বিত কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আবু হেনা আশিকুর রহমান আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। একই বছরের ১৫ অক্টোবর সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক আজিজ আহমেদ ভুইয়া আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। পরবর্তীতে আসামিদের কয়েকজন গ্রেপ্তারও হোন এবং পরে সকলেই জামিন প্রাপ্ত হন।