বান্দরবানে অবৈধ পাথরের সন্ধান, মেশিন ধ্বংস করলো ভ্রাম্যমাণ আদালত

প্রকাশিত: ৯:১৯ পূর্বাহ্ণ , জুলাই ২৯, ২০২০

বান্দরবান প্রতিনিধি:- বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে ২ হাজার ফুটেরও অধিক অবৈধভাবে উত্তোলণকৃত বোল্ডার পাথর ও কংকরের সন্ধান মিলেছে। এসময় পাথর ভাঙ্গার একটি মেশিন ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে।
গতকাল মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) দুপুরে উপজেলার ৩নং আলেক্ষ্যং ইউনিয়নের তুলা পাড়া এলাকায় উপজেলা প্রশাসনের এই ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করা হয়। এতে নেতৃত্ব দেন রোয়াংছড়ি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল্লাহ আল জাবেদ।
স্থানীয়দের সূত্রে জানা যায়, জেলা শহরের বাসিন্দা আশরাফ সওদাগর র্দীঘ দিন ধরে বিভিন্ন ঝিরি থেকে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলণ করে আসছিল। অবৈধভাবে উত্তোলণকৃত পাথর গভীর জঙ্গলে লুকিয়ে রেখে করোনা ভাইরাসের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে পাথর ভাঙ্গার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে ও পাচারের জন্য বিপুল পরিমাণ মজুদ করে রেখেছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে দুপুরে উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল্লাহ আল জাবেদ এর নেতৃত্বে একটি পুলিশের দল ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ঝিরি থেকে অবৈধভাবে উত্তলণকৃত ২ হাজার ফুটেরও অধিক বোল্ডার পাথর ও কংকরের সন্ধান পাওয়া যায় এবং পাথর ভাঙ্গার কাজে ব্যবহৃত একটি মেশিন ধ্বংস করে দেয়া হয়।
এ বিষয়ে রোয়াংছড়ি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল্লাহ আল জাবেদ বলেন, ঝিরি থেকে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলণ করা যেটি সম্পূর্ণ অপরাধ। তবে ঘটনাস্থলে কাউকে পাওয়া যায়নি। পাথর ভাঙ্গার কাজে ব্যবহৃত একটি মেশিন ধ্বংস করা হয়েছে। এ কর্মকান্ডের সাথে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি আরো বলেন, পরিবেশ পরিস্থিতির উপর বিরুপ প্রতিক্রিয়া হবে এমন কোন কাজ কাউকে করতে দেওয়া হবে না। আমাদের এ অভিযান ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে। এধরনের বিষয়ে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।