সমাবেশ নিয়ে আওয়ামী লীগ আতঙ্ক ছড়াচ্ছে

প্রকাশিত: ৬:৩৫ অপরাহ্ণ , নভেম্বর ১৭, ২০২২

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশ আমাদের চূড়ান্ত আন্দোলন নয়, সেখানে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে একথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশ নিয়ে আওয়ামী লীগ আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। আমরা ১০টি বিভাগীয় সমাবেশ ডেকেছিলাম। তার সবশেষ কর্মসূচি হলো ঢাকায় বিভাগীয় সমাবেশ। এ সমাবেশকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের নেতা, মন্ত্রীরা বিভিন্নভাবে মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে।

তিনি বলেন, আমাদের কর্মসূচি সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ, অথচ তাদের বক্তব্যে মনে হয় যে সামনে একটা যুদ্ধ হবে। সরকার সবসময় দুঃস্বপ্ন দেখছে- এই বুঝি তাদের পতন হবে।

শত বাধার পরেও বিএনপি কোথাও সহিংসতা করেনি উল্লেখ করে দলটির মহাসচিব বলেন, কিন্তু সরকার পরিকল্পিতভাবে সবখানে বাধা দিচ্ছে। আওয়ামী লীগের লোকেরা মাস্তানের মতো আচরণ করছে। আওয়ামী লীগ একটা গোয়েন্দা নির্ভর দলে পরিণত হয়েছে।

‘তত্ত্বাবধায়ক সরকার না দিলে আন্দোলনের পরে সরকার পালানোর পথ খুঁজে পাবে না’ মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, হেফাজতের সঙ্গে যেমনটা করেছে সরকার, এখন আর সেটা করতে পারবে না। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের চোখ খুলেছে। বাংলাদেশের ভোট ব্যবস্থা নিয়ে জাপানের রাষ্ট্রদূত সত্য কথা বলেছেন। আর সরকারের পায়ের নিচে মাটি না থাকায় তারা উল্টাপাল্টা কথা বলছে।

ফখরুল বলেন, নতুন করে সরকার জঙ্গি ইস্যু তৈরি করতে চায়। সরকার এসব করে সাধারণ মানুষের ওপর নির্যাতন করতে চায়। অগ্নি-সন্ত্রাসের ইতিহাস পুরাটাই আওয়ামী লীগের। অগ্নি-সন্ত্রাসের কথা বলে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে সরকার।