আমেরিকা বাংলাদেশের সঙ্গে বন্ধুত্ব বাড়াতে চায়

প্রকাশিত: ৬:২৭ অপরাহ্ণ , আগস্ট ১৬, ২০২২

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন- র‌্যাবের ওপর নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ও ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হাস।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে রাষ্ট্রদূতের বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়।

পরে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, “র‌্যাবের বিষয়ে মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেছেন, তারা যেভাবে কাজ করা উচিৎ, সেভাবে করেনি বলে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে।”

অন্যদিকে সন্ত্রাস দমনে বাংলাদেশের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন রাষ্ট্রদূত ,উল্লেখ্য, গত বছরের ১০ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্র র‌্যাবের সাবেক ও বর্তমান সাত কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। সে সময় ঢাকায় মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে ডেকে অসন্তোষ প্রকাশ করে বাংলাদেশ সরকার।

তবে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সঙ্গে বন্ধুত্ব আরো বাড়াতে আগ্রহী বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, আমেরিকা বাংলাদেশের সঙ্গে বন্ধুত্ব বাড়াতে চায়। রোহিঙ্গাদের সমস্যা সমাধানে আরো ভুমিকা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে আমেরিকা। কোস্টগার্ড-বিজিবিকে সহয়তাও করবে।

“বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা খুব ভালো বলেছেন ইউএস রাষ্ট্রদূত। এটা নির্বাচন পর্যন্ত থাকবে কিনা তা জানতে চেয়েছেন।”

বরগুনায় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগ কর্মীদের লাঠিপেটা করে পুলিশ বাড়াবাড়ি করেছে বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, “এটা উচিৎ হয়নি। তদন্ত কমিটি হয়েছে, কার বাড়াবাড়ি দেখা হবে। বাড়াবাড়ি হয়েছে, এটা না হলেও পারত।”

বৈঠকে আলোচনার বিষয়ে জানতে চাইলে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হার্স বলেন, দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এছাড়া সন্ত্রাস দমনে বাংলাদেশের পাশে থাকবে যুক্তরাষ্ট্র।