পানিবাহিত রোগে ভুগছেন বন্যার্তরা

প্রকাশিত: ১:১৫ অপরাহ্ণ , জুলাই ৬, ২০২২

বানের পানি নামতে শুরু করেছে সিলেট, সুনামগঞ্জ ও নেত্রকোনার নিম্নাঞ্চল থেকে। তবে বাড়ছে দুর্ভোগ। ডায়রিয়া, চর্মরোগসহ পানিবাহিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন বন্যার্তরা। রয়েছে বিশুদ্ধ পানিসহ গবাদি পশুর খাদ্য সংকট।

সুনামগঞ্জ সদর, ছাতক, দোয়ারাবাজার, বিশ্বম্ভরপুর, তাহিরপুর ও জামালগঞ্জে কমতে শুরু করেছে বানের পানি। বেরিয়ে আসছে ক্ষত চিহ্ন, ক্ষয়ক্ষতির তাণ্ডব।

ঘরবাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ গবাদি পশুর খাদ্য নষ্ট হওয়ায় দুর্ভোগে দুর্গত মানুষ। নেত্রকোণায় পরিস্থিতির উন্নতি হলেও নিম্নাঞ্চল থেকে পানি নামছে ধীরে। এখনও পানিবন্দি প্রায় তেইশ হাজার পরিবার। আর ৯ হাজার মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন। সুপেয় পানি অভাব প্রকট; আর বাড়ছে পানিবাহিত নানা রোগ।

এবারের বন্যায় নেত্রকোণায় পানিতে ডুবে মারা গেছেন ১৬ জন। ৫৩৭ জন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হন হাসপাতালে। বন্যার্তদের চিকিৎসায় মাঠে কাজ করছে ৯৬টি মেডিকেল টিম।

এদিকে সিলেটে বন্যার জলে ভেসে যায় হাজারো গবাদি পশু। খাদ্য সংকটে খামারীরা এবার প্রস্তুত করতে পারেননি কোরবানির পশু।