বাংলাদেশকে যুক্তরাষ্ট্র-চীনসহ ৫ দেশের অভিনন্দন

প্রকাশিত: ১১:২২ পূর্বাহ্ণ , জুন ২৫, ২০২২

পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশের মানুষকে অভিনন্দন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র-চীনসহ পাঁচটি দেশ। ঢাকাস্থ দূতাবাসের মাধ্যমে দেশগুলো এ অভিনন্দন জানিয়েছে।

শুক্রবার (২৪ জুন) ঢাকাস্থ ভারতের হাইকমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে বাংলাদেশের সরকার ও জনগণকে অভিনন্দন। এই সেতু শুধু আন্তঃবাংলাদেশ যোগাযোগকেই উন্নত করবে না, এটি বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যের সাধারণ অঞ্চলগুলোকে সংযুক্ত করার ক্ষেত্রে দরকারি লজিস্টিকস্ ও ব্যবসার জন্য প্রয়োজনীয় গতি আনবে। এই সেতু আমাদের দ্বিপাক্ষিক ও উপ-আঞ্চলিক সংযোগ বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

বহুল প্রতীক্ষিত এই প্রকল্পটির সমাপ্তি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী সিদ্ধান্ত ও দূরদৃষ্টিসম্পন্ন নেতৃত্বের প্রমাণ। এই সাফল্য প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তকে প্রমাণ করে এবং এতে আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস ছিল, যা আমরা অবিচলভাবে সমর্থন করে এসেছি যখন বাংলাদেশ একাই এই প্রকল্পটি এগিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।

এদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে লেখা এক চিঠির মাধ্যমে অভিনন্দন জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরীফ।

চিঠিতে শাহবাজ শরীফ বলেন, আমি পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্প সম্পূর্ণ হওয়ায় আপনাকে এবং বাংলাদেশের জনগণকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাই।

তিনি বলেন, ভ্রাতৃপ্রতিম বাংলাদেশের উন্নয়ন-যাত্রায় সেতুটির উদ্বোধন একটি গুরুত্বপূর্ণ যুগান্তকারী প্রতীক। এটি বাংলাদেশকে অন্তর্ভুক্তিমূলক এবং টেকসই, স্থায়ী উন্নয়নের শিখরে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে, যেটা প্রধানমন্ত্রীর দৃঢ় সংকল্পের একটি প্রমাণ।

তিনি আরও বলেন, এই সুযোগে আমি আপনার সুস্বাস্থ্য কামনা করছি, সেই সঙ্গে বাংলাদেশের ভ্রাতৃপ্রতিম জনগণের দীর্ঘস্থায়ী উন্নতি ও সমৃদ্ধির জন্য আমি পাকিস্তানের পক্ষ থেকে আমার ব্যক্তিগত অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। অনুগ্রহ করে আমার এই অভিনন্দন সর্বোচ্চ বিবেচনায় গ্রহণ করুন।

চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেছেন, ২৫ জুন একটি মহৎ দিন। এ দিন বহুল প্রতীক্ষিত পদ্মা বহুমুখী সেতু উদ্বোধন হতে যাচ্ছে, আর এক দশকের স্বপ্নপূরণ হতে চলেছে। পদ্মা সেতু আমার কাছে সাহস, সংকল্প ও সমৃদ্ধির প্রতীক। স্বপ্নের এই সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানাই।

পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়ে মার্কিন দূতাবাসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দক্ষতার সঙ্গে জনগণ ও পণ্য পরিবহনের সংযোগ ঘটাতে পরিবহনব্যবস্থার টেকসই অবকাঠামো নির্মাণ সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়নের জরুরি বিষয়। পদ্মা সেতু বাংলাদেশের অভ্যন্তরে নতুন নতুন সুযোগ সৃষ্টি করবে। পাশাপাশি বাণিজ্যিক অগ্রগতিসহ মানুষের জীবনমানের গুণগত উন্নয়ন ঘটাবে। এই সেতু দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশের নেতৃত্বে আঞ্চলিক যোগাযোগ স্থাপনে আরেকটি নজির হিসেবে বিবেচিত হবে।

এছাড়া পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া।