পূনরায় চালু পার্বতীপুর ইয়ংস্টার কাবের ‘গণকেন্দ্র পাঠাগার’

মনজুরুল হক মঞ্জু মনজুরুল হক মঞ্জু

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯:০৮ অপরাহ্ণ , জুলাই ১৩, ২০২০

করোনাকালীন সময়ে দিনাজপুরের পার্বতীপুর ইয়ংস্টার কাবের সহযোগি সংগঠন ‘ইয়ংস্টার গণকেন্দ্র পাঠাগার’ বন্ধ ছিল। লক-ডাউন তুলে নেয়ার পর আজ সোমবার বিকেল ৩টায় সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে পুনরায় এ পাঠাগার চালু করা হলো। এসময় উপস্থিত ছিলেন, কাবের সভাপতি, সমাজসেবী ও ক্রীড়া সংগঠক মোঃ আমজাদ হোসেন, প্রেসকাবের সভাপতি শ.আ.ম হায়দার, সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক মোঃ শহীদুল্লা, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক বেলাল হোসেন স্বপন, শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের সভাপতি শামসুল আলম কাজী প্রমুখ।
পার্বতীপুর রেল স্টেশনের পাশেই তিনতলা ইয়ংস্টার কাব ভবন। নীচতলা জুড়ে এক বিশাল ‘ইয়ংস্টার গণকেন্দ্র পাঠাগার। পুরো পাঠাগারই এসি। আছে প্রায় ৬ হাজার বই। রয়েছে কবিতা, গল্প, শিশুতোষ ছড়া ও গল্পের বই, উপন্যাস। আরো আছে নিয়মিত ২৫টি পত্রিকা। দৈনিক দেশ রূপান্তর, প্রথম আলো, জনকন্ঠ, সমকাল, ভোরেরকাগজ, কালেরকণ্ঠ, ডেইলী স্টার, করতোয়া, ভোরেরদর্পনসহ আরো কটি পত্রিকা আছে। সেগুলো ও পত্রিকা, জার্নাল পড়ার জন্য প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত খোলা থাকে পাঠাগার। শুক্রবার বন্ধ। পাঠাগারের সদস্য সংখ্যা মোট সাতশ। ইয়ংস্টার কাবের জন্ম ১৯৮৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর। এলাকার কয়েকজন কতপিয় যুবক মিলে প্রতিষ্ঠা করলেন ‘ইয়ংস্টার কাব’। তাদের লক্ষ্য ছিল এই জনপদে শিক্ষা ও মানবতার বিকাশ। সেটিরই অংশ পাঠাগার, জন্ম ১৯৯৮ সালে।
পাঠাগারের অন্যতম পাঠক সাংস্কৃতিক কর্মী প্রদীপ দত্ত বলেন, ফেসবুক ও ইন্টারনেটে পড়ে থাকার চেয়ে এই পাঠাগারের পুরনো বইয়ের মধ্যে অনেক বেশী আনন্দ পাই। তাই সময় সময় পেলেই ছুটে আসি।
পার্বতীপুর ইয়ংস্টার কাবের সভাপতি, সমাজসেবী ও ক্রীড়া সংগঠক মোঃ আমজাদ হোসেন বলেন, তখন আমাদের পার্বতীপুরে কোনো পাঠাগার ছিল না। ফলে এটির জন্ম হলো। গ্রামের শিার্থীরা অনেক সুবিধাই পায় না। তাদের মেধা বিকাশের পরিপূরক হিসেবে আমরা এই পাঠাগার, ওপরে ললিতকলা একাডেমি ও থিয়েটার গড়েছি। আমরা চাই, পাঠাগারের বই পড়ে ছাত্রছাত্রীদের মেধার বিকাশ হউক এবং পাঠ অভ্যাস গড়ে উঠুক।