ভয়াবহ বন্যার কবলে চীনের দক্ষিণাঞ্চল

প্রকাশিত: ৫:৫৩ অপরাহ্ণ , জুন ২৩, ২০২২

চীনের দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় ভয়াবহ বন্যা হয়েছে বলে সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। প্রবল বর্ষণের ফলে পার্ল রিভার ব-দ্বীপে পানির উচ্চতা অনেক বেড়ে যাওয়ায় সেখানে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

প্রায় এক শতাব্দীর মধ্যে এটি বন্যার সর্বোচ্চ রেকর্ড। খবর এএফপি’র।এ অঞ্চলের সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত বিভিন্ন এলাকা থেকে লাখো মানুষকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এ অঞ্চলে চীনের গুরুত্বপর্ণ গুয়াংদং প্রদেশের অবস্থান। প্রদেশটি বিভিন্ন পণ্য উৎপাদন ও সরবরাহ কেন্দ্র। আবার সেখানে চীনের প্রযুক্তি রাজধানী শেনঝেনের ও অবস্থান।

বুধবার চীনের পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় পার্ল রিভার অববাহিকায় বন্যার সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করে বলেছে, একটি স্থানের পানির স্তর ‘ঐতিহাসিক রেকর্ড অতিক্রম’ করেছে এবং এর প্রভাব প্রাদেশিক রাজধানী গুয়াংঝোউ’র ওপর পড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গুয়াংঝোউ’র উত্তরের শাওগুয়াং নগরীর ভিডিও ফুটেজে বাসিন্দাদের বন্যা কবলিত এলাকা ছেড়ে নিরাপদ স্থানে চলে যেতে এবং একই এলাকায় অনেক গাড়ির ছাদ পর্যন্ত পানিতে ডুবে থাকতে দেখা যাচ্ছে।

কাদা মিশ্রিত বন্যার পানি বিভিন্ন দোকানপাট ও বাসাবাড়িতে ঢুকে পড়ায় লোকজনকে ধ্বংসস্তুপ পরিস্কার করতে দেখা যায়।

পার্ল রিভার ব-দ্বীপের নিম্নাঞ্চল হচ্ছে গুয়াংঝোউ ও শেনঝেনের অর্থনৈতিক শক্তি। এ অঞ্চলে দেশটির ছোট-বড় বিভিন্ন শিল্প কারখানা রয়েছে। এ কারণে অঞ্চলটি ঘন জনবসতিপূর্ণ।

এ সপ্তাহের গোড়ার দিকে প্রাদেশিক জরুরি ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ জানায়, এ ভয়াবহ বন্যায় দেশের সরাসরি একশ’ ৭০ কোটি ইউয়ান (২৫ কোটি ৩০ লাখ ডলার) মূল্যের ক্ষতি হয়েছে।

এদিকে জারি করা সর্বোচ্চ সতর্ক বার্তায় গুয়াংদংয়ের ঝুঁকিপূর্ণ বিভিন্ন এলাকায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কমাতে কারখানার কাজ স্থগিত রাখা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়াসহ প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।