সুনামগঞ্জে গৃহবধূর ছয় খণ্ড মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত: ৯:৩৬ অপরাহ্ণ , ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২২

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে ফার্মেসি থেকে শাহনাজ পারভীন (৩৪) নামের এক গৃহবধূর ছয় খণ্ড মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত শাহনাজ পারভীন জ্যোৎস্না উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের নারিকেল তলা গ্রামের সৌদিআরব প্রবাসী ছুরুক মিয়ার স্ত্রী।

তবে, তিনি দীর্ঘ দিন ধরে জগন্নাথপুর পৌর এলাকায় দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে স্বামীর বাসায় থাকতেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জগন্নাথপুর পৌর পয়েন্টের ব্যারিস্টার মির্জা আব্দুল মতিন মার্কেটের তালাবদ্ধ অভি মেডিকেল হল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। পরে পরিবারের সদস্যরা মরদেহ শনাক্ত করেন।

শাহনাজ পারভীন জ্যোৎস্নার ভাই হেলাল মিয়া জানান, বুধবার বিকেলে ওষুধ কেনার কথা বলে বের হয়ে আর ফেরেনি শাহনাজ পারভীন। রাতে অনেক খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে স্বজনদের সন্দেহ হলে বৃহস্পতিবার সকালে ওই ফার্মেসি মালিকের বাসায় খোঁজ নিতে যাই। এসময় জানতে পারি তিনি পরিবার নিয়ে ভোরে পালিয়েছেন। দুপুরে জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার উপস্থিতিতে পুলিশ অভি মেডিকেল হলের তালা ভেঙে বিছানার চাদর দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় তার খণ্ডিত মরদেহ উদ্ধার করে।

ঘটনার পর থেকে ফার্মেসির মালিক জিতেশ গোপ পলাতক রয়েছেন। জিতেশ গোপ কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলার সইলা গ্রামের যাদব গোপের ছেলে। গত ১০ বছর ধরে জগন্নাথপুর বাজারে ওষুধের দোকানে চাকরি করতেন তিনি। এক বছর আগে ওই মার্কেটে অভি মেডিকেল হল নামে একটি ফার্মেসির ব্যবসা শুরু করেন।

জগন্নাথপুর থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন, এক নারীর ছয় টুকরো মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ সুনামগঞ্জ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ফার্মেসী মালিককে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

Loading