ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১৪৪ ধারা জারি

প্রকাশিত: ১:১৮ অপরাহ্ণ , জানুয়ারি ৮, ২০২২

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একই সময় ও একই স্থানে বিএনপি ও ছাত্রলীগ সমাবেশ ডাকায় পুরো পৌর এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন।

শনিবার ভোর ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত পৌর এলাকায় ১৪৪ ধারা বলবৎ থাকবে। এসময় সবধরনের সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়।

এদিকে ১৪৪ ধারা জারির কারণে ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে দূরপাল্লা ও অভ্যন্তরীণ রুটে যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে করে দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা।

সরেজমিনে সকাল সাড়ে ১০টায় পৈরতলা বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা যায়, সব বাস কাউন্টারগুলো বন্ধ পাওয়া গেছে। শহরের ভাদুঘর পৌর বাস টার্মিনাল থেকেও দূরপাল্লার কোনো বাস ছেড়ে যায়নি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকটি বাস কাউন্টারের কর্মকর্তারা জানান, ভোরে কাউন্টারগুলো খোলা হয়েছিল। কিন্তু কিছুক্ষণ পর এসে পুলিশের পক্ষ থেকে কাউন্টার বন্ধ রাখতে বলা হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হানিফ জানান, বাস চলাচল বন্ধে মালিক সমিতি কোনো নির্দেশনা দেয়নি। শহরে ১৪৪ ধারা জারির মাইকিং শুনে হয়তো শ্রমিকরা বাস চালাচ্ছেন না।

এদিকে, পৌর এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ৪০টি পয়েন্টে ৫০০ পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম জানান, সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে জেলা শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে বাস কাউন্টার বন্ধ করার কোনো নির্দেশনা দেওয়া হয়নি।

উল্লেখ্য, বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও তার উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে যাওয়ার দাবিতে ফুলবাড়িয়া কনভেনশন সেন্টারের সামনে শনিবার দুপুরে সমাবেশ ডাকে জেলা বিএনপি। একই সময়ে এবং একই স্থানে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জেলা ছাত্রলীগও ছাত্র সমবেশ ডাকে। এতে করে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির শঙ্কা দেখা দেখা দেয়।

এর আগে শুক্রবার বিকালে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক জিল্লুর রহমান এবং সদস্য জহিরুল হক খোকন ও সিরাজুল ইসলামকে নিজেদের হেফাজতে নেয় পুলিশ।