ভারতের সমান দামে টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ

প্রকাশিত: ৬:০৫ অপরাহ্ণ , ফেব্রুয়ারি ১, ২০২১

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন, সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে ভারত ও বাংলাদেশ একই দামে করোনার টিকা পাচ্ছে। দাবি করেন, স্বাস্থ্যখাতে দুর্নীতিতে জড়িত কাউকে ছাড় দেয়া হয়নি। আর শাহেদ ও সাবরিনার শাস্তি হয়েছে হাসপাতালের জন্য নয়, করোনা টেস্ট জালিয়াতির কারণে।

সোমবার জাতীয় সংসদে শেখ হাসিনা মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা, বিল নিয়ে আলোচনায় অংশ নেন বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা। এসময় স্বাস্থ্যখাতে দুর্নীতির বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাছে ব্যাখ্যা চান বিএনপির সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানা। জবাবে ব্যাখ্যা দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, কেউ অন্যায় করে ছাড় পায়নি। যার কারণে শাহেদ ও সাবরিনার শাস্তি হয়েছে হাসপাতালের জন্য নয়, করোনা টেস্ট জালিয়াতির কারণে।

করোনা ভ্যাকসিন বেশি দামে কেনা হচ্ছে কি-না? স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাছে জানতে চান বিএনপির আরেক সদস্য হারুনুর রশিদ। মন্ত্রী জানান, সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে ভারত ও বাংলাদেশ একই দামে করোনার টিকা পাচ্ছে। বাংলাদেশ, সেরাম ইনস্টিটিউট ও এজেন্ট হিসেবে বেক্সিমকোর মধ্যে ত্রিপক্ষীয় চুক্তি হয়েছে বলে আবারও উল্লেখ করেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো জানান, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইড লাইন অনুযায়ী, সংক্রমণের হার তিনের নিচে থাকায় বাংলাদেশ এখন করোনা ফেসআউটের পথে। করোনায় একজন ব্যক্তির পেছনে সরকারের ব্যয় হয়েছে ১৫ হাজার টাকা, আইসিইউতে ৫০ হাজার টাকা। সকলের স্বাস্থ্য সম্পর্কিত তথ্য রাখতে হেলথ ডাটা বাস্তবায়নের কাজ চলছে বলেও জানান জাহিদ মালেক।

প্রত্যেকটি বিভাগে একটি করে মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় করার যে ঘোষণা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিয়েছেন, খুলনা মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যায় তারই প্রতিফলন। এর আগে সিলেট, রাজশাহী, চট্টগ্রামে করা হয়েছে। হেলথ ডাটাবেজ তৈরির বিষয়ে সরকার পদক্ষেপ নিয়েছে।
প্রত্যেক ব্যক্তির যাতে হেলথ ডাটা করতে পারি, সে কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। ডাক্তার-নার্সের স্বল্পতা দূর করতে করোনাকালে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আরও নিয়োগ দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলেও জানান মন্ত্রী।