স্বরচিত কবিতা “ব্যবধান”

সামছুদ্দোহা ফরিদ সামছুদ্দোহা ফরিদ

নেত্রকোণা জেলা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৪:২৮ অপরাহ্ণ , জানুয়ারি ১০, ২০২১
                                                                                সামছুদ্দোহা (ফরিদ)
সৃষ্টির কোন খানে স্রষ্টার নিয়মে
করে তো রাখেনি স্রষ্টা ব্যবধান
মানুষ হয়ে মানুষকেই আমরা
তুচ্ছ ভেবে করি কেন অপমান?
আকাশ জমিন ফারাকের মাঝে
মিলনের বারিধারা, আছে রবীর খেলা
এমনিভাবে সাগরের বিশালতা
নদীতে, জমিনে,পাহাড়ে মিলনে দিশেহারা।
উঁচু থেকে নেমে আসে যত
আসমান ওয়ালার ফায়সালা
বৃক্ষের উঁচু ফল নেমে আসে ধরায়
স্বাস্থ্য সেবা গঠন করে জীবন সংগ্রামে লড়ায়
জল প্রপাত পতিত হয় ছুটে ঝর্ণা ধারা
উঁচু থাকেই নিচুতে চলা আদি সৃষ্টি খেলা।
নিচু হয়ে উঁচুতে কর যদি বড়ত্বের খেলা
আকাশে ছুঁড়ার মত ঢিল
ভূমিতেই আসবে ফিরে আবার
সব কিছু হবে ছাড়খার।
জলে স্থলে বায়বীয় হলে
তখনই উর্ধ্বগতি হয়
মালিকের সিফতের কথা
তখনি মনে হয়।
তোমার স্বভাবে তুমি থাক
ব্যবধানে নিজেকে ভেবনা বড়
তাহলে কিন্তু ধুম্র কুন্ডলীর মত
সব কিছুই হবে নড়বড়।
পা মাড়িয়ে চল তুমি
পায়ের নিচেই তোমার ঠিকানা
গতি তোমার নিম্ন দিকে
এ কথা তোমাদের নেই কেন জানা?
সব পশু পাখির মুখ নিম্নমুখী
কেবল তা মানুষেরই বয়সের ভারে
জীবন পরিসীমা থেমে রবে
অবশেষে মুখ থুবরে ররে।
ওয়ান টাইম যৌবন,নয় কালোজয়ী
সব কিছুই পতন হয়, সব কিছুরই আছে শেষ
ব্যবধানে বিভেদ বাড়ে
অন্যথায়, স্রষ্টার সৃষ্টির ছন্দ হবে শেষ।