জয়পুরহাটে বাসে ট্রেনের ধাক্কায় নিহত বেড়ে ১২

প্রকাশিত: ১:০৮ অপরাহ্ণ , ডিসেম্বর ১৯, ২০২০

জয়পুরহাট শহরের পুরানাপৈলে লেবেল ক্রসিং রেলগেটে বাসে ট্রেনের ধাক্কায় নিহত বেড়ে ১২ জনে দাঁড়িয়েছে। 

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) সকাল ৭টার দিকে পার্বতীপুর-রাজশাহীগামী ৩২ নম্বর উত্তরা এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষের সময় রেলক্রসিংয়ের গেট খোল রেখে গেটম্যান ঘুমিয়ে ছিলেন বলে জানিয়েছেন জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. সালাম কবির।

তিনি জানান, হিলি থেকে ছেড়ে আসা ট্রেনটি জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলা হয়ে রাজশাহী যাচ্ছিল। উপজেলার পুরানাপৈল রেলক্রসিং অতিক্রম করার সময় একটি বাসের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এরপর ট্রেনটি থেমে যায়। এতে বাসটি দুমড়েমুচড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলেই ১০ জন নিহত হন। গুরুতর আহত হন ছয়জন।

তিনি আরও জানান, আহতদের প্রাথমিকভাবে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও দুজন মারা যান।

হতাহতদের পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা সম্ভব হয়নি বলে জানান এসপি।

জেলা প্রশাসক শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘এখন পর্যন্ত ১২ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।’

ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম জানান, ‘পাঁচবিবি থেকে ছেড়ে আসা জয়পুরহাটগামী একটি বাস পুরানাপৈল রেলগট অতিক্রমকালে পার্বতীপুর থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহীগামী একটি ট্রেন ওই বাসকে ধাক্কা দিলে বাসটি দুমড়ে মুচড়ে যায় এবং ট্রেনটি লাইনচ্যুত হয়। ফায়ার সার্ভস ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কার্যক্রম চালাচ্ছে। এখন পর্যন্ত ১২ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আহতদের জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।’

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, পার্বতীপুর থেকে রাজশাহীগামী ৩২ নম্বর উত্তরা এক্সপ্রেস ট্রেনের সঙ্গে বাঁধন পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাসের সংঘর্ষ হয়। বাসটি জয়পুরহাট থেকে পাঁচবিবি যাচ্ছিল।

পথে বাসটি পুরানাপৈল রেলক্রসিং পার হওয়ার সময় ট্রেনটিও সেখানে চলে আসে। এতে হতাহত হওয়ার এ ঘটনা ঘটে। নিহত ১২ জন বাসের যাত্রী ছিলেন।

দুর্ঘটনার পর উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।