যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের জিএসপি সুবিধা বহাল থাকবে

প্রকাশিত: ১১:২৩ পূর্বাহ্ণ , নভেম্বর ১২, ২০২০

ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে গেলেও বাংলাদেশসহ বিশ্বের স্বল্পোন্নত ৪৭টি দেশ যুক্তরাজ্যে পণ্য রফতানিতে জেনারালাইজড সিস্টেম অব প্রেফারেন্স বা জিএসপি সুবিধা পাবে।

এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ব্রিটিশ সরকার জানিয়েছে, সারাবিশ্বে ভিন্ন শুল্ক কাঠামোতে পণ্য আমদানি করলেও স্বল্পোন্নত আর উন্নয়নশীল দেশগুলোর পণ্য পুরোপুরি শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার পাবে। যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানির পর ব্রিটেনই বাংলাদেশের তৃতীয় বৃহত্তম পণ্য রফতানিকারক দেশ। ২০২১ সাল থেকে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য থাকছে না ব্রিটেন। কিন্তু বাংলাদেশকে কোন শুল্ক দিতে হবে না পণ্য রফতানিতে। ২০১৯-২০ অর্থবছরে বাংলাদেশ যুক্তরাজ্যে ৩৫০ কোটি ডলারের পণ্য রফতানি করেছে।

মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য বিষয়কমন্ত্রী লিস ট্রাস ট্রুজ জানান, যুক্তরাজ্য এখন ইউরোপীয় ইউনিয়নে নেই। বেক্সিট পুরোপুরি কার্যকর হলে ব্রিটিশ আমদানিকারকরা বিশ্বের দরিদ্রতম দেশগুলোর পোশাক ও শাক-সবজির মতো নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যগুলোতে শূন্য বা হ্রাস শুল্ক প্রদান অব্যাহত রাখবে। এটি উন্নয়নশীল অর্থনীতির দেশগুলোকে সুদৃঢ় শিল্প প্রতিষ্ঠা, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও দীর্ঘমেয়াদে বিদেশি সহায়তার ওপর নির্ভরতা কমাতে সহায়তা করবে বলেও মনে করেন লিস ট্রাস ট্রুজ।