মহানবী ও বিবি আয়েশা রা কে নিয়ে কটুক্তি করায় গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৭:১৮ অপরাহ্ণ , অক্টোবর ৩০, ২০২০

ফেসবুকে মহানবী ও বিবি আয়েশা রা:কে কটূক্তি করায় গ্রেফতার

ফেনীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মহানবী (সা.) ও আয়েশা সিদ্দীকাকে (রা.) নিয়ে ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপ করায় ফেনীতে মিঠুন দে ওরফে পিকলু নীল (৩২) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। এর আগে ওই যুবক তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি “পিকলু নীল” থেকে ধর্মীয় উস্কানিমূলক বিভিন্ন প্রচারণা চালিয়ে আসছেন। এ ঘটনায় ফেনীতে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার রাতে মো. ছানা উল্লাহ নামের এক ব্যক্তি তার বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগ ও সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সম্প্রতি সময়ে ফেনী শহরের ডাক্তার পাড়ার বাসিন্দা কালি প্রসাদ ওরফে বাচ্চু দে’র ছেলে পিকলু নীল তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডিতে ইসলাম, মহানবী (সা.), আয়েশা সিদ্দীকা (রা.), আলেম ওলামা ও পর্দার বিষয়ে বিভিন্ন বিদ্রুপ মূলক পোষ্ট করে আসছেন।
এসব পোষ্টের কারণে ফেনীতে ক্ষোভ ও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ধর্মপ্রাণ মসুল্লিরা ওই যুবককে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে প্রসাশনের নিকট দাবি জানায়। এক পর্যায়ে বৃহস্পতিবার রাতে পিকলুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। একইদিন রাতে ফেনী সদর উপজেলার ধলিয়া ইউনিয়নের ফজল উদ্দিন কারী বাড়ীর আশেক এলাহীর ছেলে ছানা উল্লাহ বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত ওমর হায়দার মামলা দায়েরর সত্যতা নিশ্চিত করেন।
আজ শুক্রবার পুলিশ তাকে আদালতে পেশ করেন। আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

ফেসবুকে মহানবী ও বিবি আয়েশা রা:কে কটূক্তি করায় গ্রেফতার

ফেনীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মহানবী (সা.) ও আয়েশা সিদ্দীকাকে (রা.) নিয়ে ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপ করায় ফেনীতে মিঠুন দে ওরফে পিকলু নীল (৩২) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। এর আগে ওই যুবক তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি “পিকলু নীল” থেকে ধর্মীয় উস্কানিমূলক বিভিন্ন প্রচারণা চালিয়ে আসছেন। এ ঘটনায় ফেনীতে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার রাতে মো. ছানা উল্লাহ নামের এক ব্যক্তি তার বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগ ও সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সম্প্রতি সময়ে ফেনী শহরের ডাক্তার পাড়ার বাসিন্দা কালি প্রসাদ ওরফে বাচ্চু দে’র ছেলে পিকলু নীল তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডিতে ইসলাম, মহানবী (সা.), আয়েশা সিদ্দীকা (রা.), আলেম ওলামা ও পর্দার বিষয়ে বিভিন্ন বিদ্রুপ মূলক পোষ্ট করে আসছেন।
এসব পোষ্টের কারণে ফেনীতে ক্ষোভ ও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ধর্মপ্রাণ মসুল্লিরা ওই যুবককে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে প্রসাশনের নিকট দাবি জানায়। এক পর্যায়ে বৃহস্পতিবার রাতে পিকলুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। একইদিন রাতে ফেনী সদর উপজেলার ধলিয়া ইউনিয়নের ফজল উদ্দিন কারী বাড়ীর আশেক এলাহীর ছেলে ছানা উল্লাহ বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত ওমর হায়দার মামলা দায়েরর সত্যতা নিশ্চিত করেন।
আজ শুক্রবার পুলিশ তাকে আদালতে পেশ করেন। আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

.

ফেসবুকে মহানবী ও বিবি আয়েশা রা:কে কটূক্তি করায় গ্রেফতার

ফেনীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মহানবী (সা.) ও আয়েশা সিদ্দীকাকে (রা.) নিয়ে ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপ করায় ফেনীতে মিঠুন দে ওরফে পিকলু নীল (৩২) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। এর আগে ওই যুবক তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি “পিকলু নীল” থেকে ধর্মীয় উস্কানিমূলক বিভিন্ন প্রচারণা চালিয়ে আসছেন। এ ঘটনায় ফেনীতে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার রাতে মো. ছানা উল্লাহ নামের এক ব্যক্তি তার বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগ ও সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সম্প্রতি সময়ে ফেনী শহরের ডাক্তার পাড়ার বাসিন্দা কালি প্রসাদ ওরফে বাচ্চু দে’র ছেলে পিকলু নীল তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডিতে ইসলাম, মহানবী (সা.), আয়েশা সিদ্দীকা (রা.), আলেম ওলামা ও পর্দার বিষয়ে বিভিন্ন বিদ্রুপ মূলক পোষ্ট করে আসছেন।
এসব পোষ্টের কারণে ফেনীতে ক্ষোভ ও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ধর্মপ্রাণ মসুল্লিরা ওই যুবককে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে প্রসাশনের নিকট দাবি জানায়। এক পর্যায়ে বৃহস্পতিবার রাতে পিকলুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। একইদিন রাতে ফেনী সদর উপজেলার ধলিয়া ইউনিয়নের ফজল উদ্দিন কারী বাড়ীর আশেক এলাহীর ছেলে ছানা উল্লাহ বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত ওমর হায়দার মামলা দায়েরর সত্যতা নিশ্চিত করেন।
আজ শুক্রবার পুলিশ তাকে আদালতে পেশ করেন। আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

.

ফেসবুকে মহানবী ও বিবি আয়েশা রা:কে কটূক্তি করায় গ্রেফতার

ফেনীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মহানবী (সা.) ও আয়েশা সিদ্দীকাকে (রা.) নিয়ে ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপ করায় ফেনীতে মিঠুন দে ওরফে পিকলু নীল (৩২) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। এর আগে ওই যুবক তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি “পিকলু নীল” থেকে ধর্মীয় উস্কানিমূলক বিভিন্ন প্রচারণা চালিয়ে আসছেন। এ ঘটনায় ফেনীতে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার রাতে মো. ছানা উল্লাহ নামের এক ব্যক্তি তার বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগ ও সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সম্প্রতি সময়ে ফেনী শহরের ডাক্তার পাড়ার বাসিন্দা কালি প্রসাদ ওরফে বাচ্চু দে’র ছেলে পিকলু নীল তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডিতে ইসলাম, মহানবী (সা.), আয়েশা সিদ্দীকা (রা.), আলেম ওলামা ও পর্দার বিষয়ে বিভিন্ন বিদ্রুপ মূলক পোষ্ট করে আসছেন।
এসব পোষ্টের কারণে ফেনীতে ক্ষোভ ও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ধর্মপ্রাণ মসুল্লিরা ওই যুবককে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে প্রসাশনের নিকট দাবি জানায়। এক পর্যায়ে বৃহস্পতিবার রাতে পিকলুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। একইদিন রাতে ফেনী সদর উপজেলার ধলিয়া ইউনিয়নের ফজল উদ্দিন কারী বাড়ীর আশেক এলাহীর ছেলে ছানা উল্লাহ বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত ওমর হায়দার মামলা দায়েরর সত্যতা নিশ্চিত করেন।
আজ শুক্রবার পুলিশ তাকে আদালতে পেশ করেন। আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

ফেনীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মহানবী (সা.) ও আয়েশা সিদ্দীকাকে (রা.) নিয়ে ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপ করায় ফেনীতে মিঠুন দে ওরফে পিকলু নীল (৩২) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। এর আগে ওই যুবক তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি “পিকলু নীল” থেকে ধর্মীয় উস্কানিমূলক বিভিন্ন প্রচারণা চালিয়ে আসছেন। এ ঘটনায় ফেনীতে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার রাতে মো. ছানা উল্লাহ নামের এক ব্যক্তি তার বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগ ও সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সম্প্রতি সময়ে ফেনী শহরের ডাক্তার পাড়ার বাসিন্দা কালি প্রসাদ ওরফে বাচ্চু দে’র ছেলে পিকলু নীল তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডিতে ইসলাম, মহানবী (সা.), আয়েশা সিদ্দীকা (রা.), আলেম ওলামা ও পর্দার বিষয়ে বিভিন্ন বিদ্রুপ মূলক পোষ্ট করে আসছেন।
এসব পোষ্টের কারণে ফেনীতে ক্ষোভ ও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ধর্মপ্রাণ মসুল্লিরা ওই যুবককে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে প্রসাশনের নিকট দাবি জানায়। এক পর্যায়ে বৃহস্পতিবার রাতে পিকলুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। একইদিন রাতে ফেনী সদর উপজেলার ধলিয়া ইউনিয়নের ফজল উদ্দিন কারী বাড়ীর আশেক এলাহীর ছেলে ছানা উল্লাহ বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত ওমর হায়দার মামলা দায়েরর সত্যতা নিশ্চিত করেন।
আজ শুক্রবার পুলিশ তাকে আদালতে পেশ করেন। আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

.

.

.