করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া যুবকের শেষকৃত্য করলো পুলিশ

প্রকাশিত: ১:৫৭ অপরাহ্ণ , আগস্ট ৩১, ২০২০

মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়া যুবকের শেষকৃত্য অনুষ্ঠান করলেন জেলা পুলিশের সদস্যরা।
গতকাল রোববার (৩১ আগস্ট) রাত আটটায় বৃদ্ধা মাকে রেখে মারা যান মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার বালিরটেক শানবান্ধা গ্রামের মৃত তরণী সরকারের ছেলে লক্ষ্মণ সরকার (৩৫)। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানান, গত বুধবার (২৬ আগস্ট) তীব্র শ্বাসকষ্টসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে সেখানে ভর্তি হন তিনি।
মানিকগঞ্জ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ভাস্কর সাহা বলেন, পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি কাঠমিস্ত্রি লক্ষ্মণ সরকারকে হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েন মৃতের মা। নিজ এলাকায় নিয়ে শেষকৃত্য করার আর্থিক সামর্থ্য ছিল না মৃতের পরিবারের। এই দুর্দিনে ওই বৃদ্ধা মায়ের পাশে পরিবার ও এলাকাবাসী না থাকায় মানিকগঞ্জ জেলা পুলিশ এই দায়িত্বটি নিজেদের কাঁধে তুলে নেয়। রাতেই জেলা শহরের শিববাড়ি মহাশ্মশানে হিন্দু ধর্মীয় রীতিমতো মৃতের সৎকারের ব্যবস্থা করা হয়।
পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম বলেন, হাসপাতাল থেকে বলা হয় লক্ষ্মণ সরকারের বৃদ্ধা মা এলাকায় মরদেহ নিতে অপারগতা জানিয়েছেন। মোবাইল ফোনে সংবাদটি পেয়ে তিনি স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দকে জানান। কিন্তু রাতে শেষকৃত্য অনুষ্ঠান করাটা তাদের জন্য কষ্টকর হয়ে পড়ে। একারণে তিনি সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ভাস্কর সাহাকে শেষকৃত্য অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন করতে নির্দেশনা দেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে মানিকগঞ্জ থানার পুলিশ সদস্যদের সাথে নিয়ে পৌরসভার কাউন্সিলর রতন মজুমদার ও সুভাষ সরকারের সহযোগিতায় রাতেই ভাস্কর সাহার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন করেন।
মানবিক পুলিশ হিসেবে করোনা মহামারির এই সময়ে মানিকগঞ্জ জেলা পুলিশের এ ধরনের কার্যক্রম বাংলাদেশ পুলিশের ভাবমূর্তিকে আরও সমৃদ্ধ করেছে বলে মনে করেন স্থানীয়রা। আরটিভি নিউজ