হাসপাতালেই ডাক্তার আর নার্সের বিয়ে

প্রকাশিত: ১২:৩০ অপরাহ্ণ , মে ২৭, ২০২০

করোনাভাইরাসের কারণে একবার বিয়ের অনুষ্ঠান বাতিল করতে হয়েছিল এক চিকিৎসক আর এক নার্সকে। পরে আবার সেই তারিখ এগিয়ে নিয়ে এসে তারা যেখানে কাজ করেন সেই হাসপাতালেই বিয়ে করলেন। এখনও পর্যন্ত সুস্থ থাকার কারণে এই যুগল বিয়ের তারিখ এগিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেন।

৩৪ বছর বয়সী নার্স জান টিপিং এবং ৩০ বছর বয়সী চিকিৎসক আন্নালান নাভারাতনাম লন্ডনের সেন্ট থমাস হাসপাতালের সেবার সঙ্গে জড়িত। এই হাসপাতালের একটি চ্যাপেলে বিয়ে করেন তারা। এই বিয়ের অনুষ্ঠান লাইভ-স্ট্রিমিংয়ের মাধ্যমে সম্প্রচার করা হয়, যাতে স্বজনরা বাড়িতে বসেই অংশ নিতে পারেন।

নার্স মিস টিপিং নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডের এবং মি. নাভারাতনাম শ্রীলঙ্কার নাগরিক। আগামী আগস্টে তাদের বিয়ের পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে হয়তো আয়ারল্যান্ড আর শ্রীলঙ্কা থেকে তাদের স্বজনরা বিয়েতে অংশ নিতে পারবে না ভেবেই বিয়ের অনুষ্ঠান এগিয়ে নিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নেন তারা।

সাউথ লন্ডনের তুলসি হিল এলাকার বাসিন্দা মিস টিপিং একজন জরুরি সেবা বিভাগের নার্স। তিনি বলেন, তারা এই সিদ্ধান্ত নেন কারণ “আমরা নিশ্চিত করতে চেয়েছিলাম যাতে সবাই আনন্দ করতে পারে, সবাই এখনো সুস্থ, যদিও আমাদের স্বজনরা আমাদেরকে স্ক্রিনেই দেখছে।”

মি. নাভারাতনাম একজন চিকিৎসক হিসেবে সেন্ট থমাস হাসপাতালে এক বছর ধরে কাজ করছেন। তিনি বলেন, “খুবই খুশি, কারণ আমরা একে অপরের কাছে অঙ্গীকারবদ্ধ হতে পেরেছি।”

নব দম্পতির জন্য ভার্চুয়াল অভ্যর্থনা, নাচ এবং বক্তব্যের ব্যবস্থা করা হয়। রেভারেন্ড মিয়া হিলবর্ন যিনি বিয়ের পুরো বিষয়টি পরিচালনা করেছেন। তিনি বলেন, “এই আয়োজনের অংশ হতে পেরে তিনি শিহরিত।”

এদিকে বিয়ের খবর শোনার পর এক টুইটে ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক লিখেছেন, “ব্যাপারটি চমৎকার।”