পেশ ইমাম গ্রেপ্তার

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তি

প্রকাশিত: ৫:১৩ অপরাহ্ণ , জুলাই ১৮, ২০২০

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি ও রাষ্ট্রবিরোধী প্রচার-প্রচারণা মামলায় বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় আব্দুর রহমান দিদারীকে (২৮) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তিনি বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের ধুন্দার গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে। তিনি শেরপুর উপজেলার কুসুম্বী ইউনিয়নের বাগড়া কলোনি জামে মসজিদের পেশ ইমাম।

আজ শনিবার দুপুর ১টার দিকে শেরপুর থানা থেকে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আব্দুর রহমান দিদারীকে বগুড়া জেলা আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার মধ্যরাতে বাগড়া কলোনি এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার হেফাজত থেকে একটি স্যামফনি অ্যান্ড্রোয়েড মোবাইল ফোন সেট জব্দ করা হয়। পুলিশ তার মোবাইল ফোনে থাকা ফেসবুক আইডিতে এ সব ঘটনার সত্যতার প্রমাণ পেয়েছেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, জামায়াতের সমর্থক আব্দুর রহমান দিদারী মসজিদে ইমামতি ও ইসলামী জলসায় ওয়াজ মাহফিল করে জীবিকা নির্বাহ করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে মসজিদ ও ইসলামী জালসায় সরকারের বিরুদ্ধে উসকানিমূলক বক্তব্যের পাশাপাশি তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি করে আসছেন।

এ ঘটনায় শেরপুর উপজেলার কুসুম্বী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার আলী সঞ্জু বাদী হয়ে আব্দুর রহমান দিদারীর বিরুদ্ধে শুক্রবার রাতে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় রাতেই পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

উপজেলার কুসুম্বী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার আলী সঞ্জু বলেন, আব্দুর রহমান দিদারী তার ব্যক্তিগত ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি ও রাষ্ট্রবিরোধী প্রচারণা চালান। এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় তিনি ফেসবুক থেকে আপত্তিকর কিছু পোস্ট মুছে ফেলেন। তবে সকল আপত্তিকর বিষয় মুছে না ফেলায় বাধ্য হয়ে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছি।

শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আব্দুর রহমান দিদারী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। মাওলানা সাঈদীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়ায় কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে তিনি ফেসবুকে স্ট্যাটাসগুলো দিয়েছিলেন বলে ওই পুলিশ কর্মকর্তা জানান।